পাতা:অভেদী.pdf/৫৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


[ ৪৯ ] সাহেব তাছাকে লইয়া বাছিরে আসিলেন। পর দিবস প্রাতে বাবু সাহেব আইলে জেকে। বাবু বলিলেন—পুত্রের মৃত্যু দেখিয় আড়ার অস্তিত্ব কিঞ্চিৎ প্রতীয়মান হয়। সমস্ত রাত্রি বিছানায় ছট ফট্‌ করিয়াছি—শেষরীত্রে একটু তন্ত্রা আসিয়াছে এমত সময় পুত্রের শাস্তু বদন দেখিলাম —আমাকে বলিতেছে —‘‘ পিতঃ দেছ ত্যাগ করিয়া সুখে আছি।” এ কি চমৎকার ! বাবু সাহেৰ একটু বিবেচনা করিয়া বলিলেন এ স্বপু, নতুবা । মস্তিষ্ক পরিষ্কার ছিল না । বিশেষ প্রমাণ না পাইলে এ সব গ্রহণ করিতে পারি মা। এক্ষণে এই গোলযোগ সর্বদেশে হইতেছে—কিন্তু এ সকলই অলীক ও কেবল ভ্রম ও প্রতারণা জনক । র্জেকে বাবু যদিও ঈশ্বর মানিনা তথাচ তাছাকে একটু ধ্যান করিলে শোক অলপ বোধ হয় । বাবু সাহেব । সুতরাং এক চিন্তা কি এক ভাব ত্যাগ করিয়া অন্য চিন্তু কিম্ব অন্য ভাব আনিলে পূর্ব চিন্তা কি পূর্ণ ভাব অবশ্যই বিগত হইবে। জেকে। বাবু। কিন্তু ঈশ্বর চিন্ত মিষ্ট বোধ হয়। বাবু সাহেব । তা আমি জানি না-নিকটে সেই আত্মাওলাল? অাছেন, তঁাকে জিজ্ঞাসা কর । লণবু সাহেব অন্যান্য অলিপি করিয়া গমন করিলেম । তাহার পর অন্বেষণ ভাপনা আপনি তালিয়া উপস্থিত । যদিও জেকে বাবু তাঙ্কাকে অবজ্ঞা করিতেন তথাচ শোকেড়ে ম্ৰিয়মাণ হইয়। সমাদর পূর্বক আহ্বান করিলেন।