পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/১০১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


为黑 অমরনাথ । ষাঁড়েশ্বর মিত্রের গুপ্ত পুজার ঘর । ( ষাড়েশ্বর মিত্র এবং গোপীনাথ দাসের প্রবেশ ) র্যাড়ে। কালকের সে যন্ত্রটাতে আর কিছু ছিল ? গোপী। প্রায় পোয়াটাক আছে। র্ষাড়ে। জবাফুল চন্নন এসকল পুজোর আযাজোন সব ঠিক আছেতো ? গোপী। তা সব আছে। র্যাড়ে। তবে তুই এক কাজ কব । পুজোব জাযগাট কোবে, অব যে টুকু আছে তাই আমাকে দিয়ে, তুই দৌড়ে গিযে আব এক যন্তোব সামেগ্‌গিবি নিয়ে আয়। শিগগির আসতে চাস তোকে আবাব খিরপুব যেতে হবে । গোপী। তা বোল্‌তে হবেক নি । [ প্রস্থান । ষাঁড়ে। আহ ! এখন শবিল্‌টে পাতলা হল। যখন পাট। হাত কবিচি তখন আর যায় কোথায় । জমিদাব বেটাকেও ফাকি দিতে হবে । কিন্তু তার সময় আছে! এব পরে সত্তোর হাজার টাকা মুনফার বিষয হাতে থাকলে ওরই বাড়ীর মেয়ে মানুষ এসে আমার এই ভৈরবী চক্কোবে বোসবে, আর মায়ের পুজোর সময়ে শক্তি হবে। তবে এখন পুজো আবাম্ব করা যুক। (তিন পাত্র লইয়া পুজারম্ভ ) । (গোপীনাথের পুনঃ প্রবেশ ) গোপী । (স্বগত) ইঃ, এই যে কাজ পেকেচে । পুজোয় বোসেচেন। তিন পাত্র কারণ কোরেছেন। আর কোত্তে হবেক নি । এখন এই ধাক্কা সাম্লে উইলিই ওঁর মেগেব এইয়োত। আমি ওতে ধুতরে রস কোবে দিইচি । আমাকে বোলবে. পাট খান ফিরে দিয়ে এসতে। সে হয়েচে ভাল। এ দিগেও সে পাচ আনির দাওয়ান এতখন তারারাম তারারাম