পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/১৬৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অমরনাথ । هو في এক দিকে আর আমি এক দিকে দাড়ায়ে মেজেক্টরের কাছারিতে মকদমা করা—আর এই বিষয় লয়ে,—এ কি হোতে পারে ? কমল । ভাল, তা ষদি নাই থাকা হয়, তবে কেন আমাদেরও সঙ্গে নিয়ে চল না ? অামাদের সবই তো প্রস্তুত আছে। কাল সন্ধের পর যে সময় যাবার কথা স্থির আছে, সেইরূপ যাওয়া যাবে। অমর। আহা ! আমি কি বোল্ব ? আর কিবা কোরব ? প্রেয়সি ! তুমি যা ভাবচ এ তা নয়। আমায় যেতে হোচ্চে গোপনে আর ছদ্মবেশে। আবার এই ক্ষণেই যাব, কেন না এর পরে আর গাড়ী পাওয়া যাবে না । অণর আমি যে কোথায় যাই, তাও–(কমলবাসিনী অমরনাথের মুখাভিমুখে চাহিতে চাহিতে এক বার সম্পূর্ণরূপে চকুৰুন্মীলন করিয়া অমরনাথের ক্রোড়ে মস্তক অবনত করিয়া মুচ্ছৰ্গ ) একি ? একি ? আহ ! এ সব ঘোটবে, তা তো আমার জানাই আছে । আহা ! আমার মুখের দিকে চাইতে চাইতে চক্ষু দুটি সম্পূর্ণ উন্মীলিত হেয়ে অমনি মুদ্রিত হল : ষেন প্রদীপটি নির্বাণের পুৰ্ব্বে একবার দপ কোরে জ্বলে উঠে অবশিষ্ট্র বৰ্ত্তিক টুকু দগ্ধ কোরে নির্বাণ হল । একি ভ্ৰমি ! কি একেবারে মহাপ্রাণী আর উত্তাপ সহ কোর্ভে না পেরে এই অগ্নি-দগ্ধ—এই প্রজ্বলিত গৃহ ত্যাগ কোরে পালালেন । আহ ! কি সৰ্ব্বনাশ! হায় হায় ! কি বিপদেই পোড়লেম ! (অশ্রুপুর্ণ নয়নে কমলবাসিনীর প্রতি দৃষ্টি করিয়া পাখার বাতাস) না, জীবনের লক্ষণ আর কিছুই নেই, নিশ্বাস প্রশ্বাস এককালীন স্থগিত । আহ ! প্রেয়সি ! যা তোমার অভিলাষ, তাইই হল ! এক সঙ্গেই যাওয়া হল ! তবে তুমি আমার সঙ্গে না গিয়ে আমিই তোমার সঙ্গে যাই । আর কোথাও যাবার প্রয়োজন হল না ! হা প্রেযলি ? সত্যই কি ফাকি দিলে । কমল । ( দীর্ঘ শ্বাস এবং চক্ষুরুন্মীলন ) আহা ! কি হবে এখন !