পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/২০৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অমরনাথ । 第 థినఁ নীল । এক খান ঘোটুল বড় মন্দ না । কোত্থাও কিছু নেই, হঠাৎ দুপুর বেলা দপ্ত কোরে ঘরের মটুকা জ্বলে উঠল। মুসারের তো ঘোর সন্নিপাতিক উপস্থিত—যেমন দাহ, তেমনি পিপাসা, তেমনি আগুন ছুটছে । চোক মুখ বন বন কোচ্ছে, এক একবার বেঁকে কেঁকে উইচে । নাড়ী নেই । এর তো ঔষধ আবার বাঘের দুধ । আমার সইয়ের কাছথেকে যে ফুল গড়ান, সেতে অম্প মাথা কোটার কৰ্ম্ম না । চেষ্টা কোর্ভে হয়েছে। এ বিবাহটি ঘোটলে বড় সুখের হয় । আহ ! আমার সই যে এমন অপূৰ্ব্ব শতদল, এ কেবল বৈধবা শিশিরে শুকিয়ে যাবে ? আবার স্থসারও সইয়ের যোগ্য পাত্র । যেমন রূপ, তেমনি গুণ, তেমনি স্বভাব। দেখি কি হয় । 赏 ( চারুকমলের পুনঃ প্রবেশ ) এস, এস, । সই ! তোমাকে দেখলে আমার মনটা এমনি উল্লাসিত হয় যেমন চক্রবাক সমস্ত রাত্রের বিচ্ছেদের পর প্রাতঃকালে চক্রবাকীর মুখ দেখলে, যেমন দরিদ্র সন্তানের রাজকন্যা পত্নী মণিমুক্ত জড়িত অলঙ্কারে ভূষিত হয়ে তার পাশ্বে এসে প্রথম শয়ন কেরলে, যেমন বিবাহের পরেই পুরুষ বহুদিন প্রবাসী হয়ে গৃহে প্রত্যাগমন কোরে স্ত্রী যুবতী হয়েচে দেখলে । চারু। স্থা, আর যেমন ব্রহ্মদৈত্যি শাখচিত্নী দেখলে। ও এয়েছিল কারণ ? নীল। তুমি কি বাড়ীতে গিছলে নাকি ? চার । না অামি সইমায়ের কাছে বোসে ছিলেম। ও এয়েছিল কারা ? নীল। কি ও তোমারও যেন কিছু গোর হারান মানুষের মত ফুলকে চোখে রকমটা দেখুচি ষে । f