পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/২৫৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


૨88 অমরনাথ । এক বাব দেখি । তা হলে যেমন পিপাসাব সময় পথিক লোক মেঘ দেখলে জলের অtশাতেও কিছু কাল শাম্য থাকে, আমিও সেই রকম আর কিছু দিন বাছতে পারি।” চারু । আহ । বটে ? তবে তুমি আমাকে এত দিন বল নি কেন ? আহা আমার জন্যে র্তার এত যন্ত্রণ ভোগ হোচ্ছে ? অামারও হৃদয় যেন ভাববার স্থাড়ীর মত উত্তাপে ফেটে যাবার গতিক হয়েচে । তা আচ্ছা ত৷ আমরা কেননা মেয়ে মানুষ, আমরা মনেব কথা প্রকাশ কোত্তে পাবি নে, তিনি পুরুষ মানুষ, তিনি কেন তবে মতি বাবুর কাছে একথা উপস্থিত করেন না ? লীল। পুরুষ মানুষ বটে, কিন্তু সে আবার মেযে মানুষেৰ অধম। এই বোঝ আর কি আমি তো তাব বড় ভাজ, আর একই বয়েস, বরং সে অামার চেয়ে তিন মাসেব বড়, তবু আমার মুখ পানে চেয়ে ককুখনও কথা কয় না। উহ! পায়ে বি বি ধোবেচে, চল একটু বেড়িয়ে বেড়িয়ে কথা কই। চল তোমার সেই মালতী লতার ঘবে বেঞ্চের উপর বোসি গে। চারু । আচ্ছ। চল, কিন্তু এখন ঘরে যাওযা হবে না, অনেক কথা फ्राप्टिक्क । নীল । (স্বগত) তা বুঝিচি, মুতন কথা কিছু থাক আর নেই থাক, উপস্থিত কথার ছিবড়েও তোমার কাছে রসে ভরা বোধ হচ্ছে । ( প্রকাশ্য ) • খুলিল মনেব দ্বার না লাগে কপাট “ ত সই তোমার এত পিরীত হল কৰে ? চারু। প্রথমে পিতার মুখে, পরে মার আর সকলের মুখে তার রূপ গুণের কথা শুনে, আমার মনে একুট আকর্ষণ বোধ হল। যে দিন তোমার ওখানে দেখা হয় সে দিন সেই অাকর্ষণ এমনি প্রবল হল যে, অামাব পতন হয় আর কি। অনেক দিন আমি তাকে আর বাড়তে দেইনি, বরং নিবারণ