পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/৫৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


静● অমরনাথ । গণেশ । আহা ! বেশ । বেশ ! কি মজার বাহার ! কি মজাব বাহার † আজ গাজনের দিন কি মজার বাহার ! অস্থত। তবে মুখুয্যে মহাশয়! এখন তুমি কি বোলছিলে বল। ( গোবিন্দ মুখুয্যের কাণে কাণে ) গণেশকেও এই কথার মধ্যে ন্যাও, তা নৈলে ও মনে কোবে আমাকে তাচ্ছিল্য করে। তা হলে বাগড় দেবার চেষ্টা কোর্বে। গোবিন্দ । বাৰু এই দিগে একটু মনোযোগ কৰুন । ক্ষুধু এক অমৃত বাবুর দ্বারা কিছু হবে না। আপনি যদি অনুগ্রহ করেন তা হলেই নিঃসন্দেহ হয় । গণেশ । কি বিষয়টা কি বল দিখি ? অামার তো ভাই ল্যাঠা অনেক । ত তা বোলে আর কি হৰে তুমি বন্ধু মানুষ হোচ্চ, তোমার কথা বাখতেই হবে। আবার আমি যদি লাগলেম, তবে যে কন্মই কেন হোক না, তা নিম্পিদিপ কোরে দিবই দিন । গোবিন্দ। ই, আপনি লাগলে সে তো ধরাই আছে । তা আমার কথা তো আমি প্রথমেই বোলিটি । অবৃত। তুমি কি যথার্থই খেপলে নাকি ? অমর বাবুর মেয়ে তুমি বিয়ে কোর্ভে চাও, সে হোচ্চে রাজা, তুমি ধরিত্র ব্রাহ্মণ, তাতে সে মেয়ে বিধবা। আর এটাও কিছু বড় সহজ কথা নয় যে তুমি গ্ৰাহ্মণ হয়ে কায়ন্থের মেয়ে বিয়ে কোর্ভে চাও। তুমি সকল বিষয়েতেই বেশ বুদ্ধিমানের ন্যায কথা কও, কেবল এই বিয়ের কথা গোড়লেই তোমার কপাল পোড়ে ! গোবিন্দ। এই ? এই কথা বৈতে না ? প্রথমতঃ তিনি রাজাই বল, আর ধনীই বল, ভাল তা হল । তা বড় মানুষের মেয়ে তো প্রায় গরিব হাড়হাবাতে, এরাই বিবাহ করে। তবে কিনা ঐ পাজগুলি কুলীন। তৰে দেখুন কুলীন মৌলিকে যত তারতম্য, ব্রাহ্মণ কায়স্থতে তার সহস্ৰগুণ ।