পাতা:অর্থনীতি ও অর্থব্যবহার.pdf/২২৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


え>& श्रर्थनौरूि ७ अर्थदावशब्ल। নিয়মের অনুসরণ করা রাজার কর্তব্য নিম্নে তাহার বিচার করা যাইতেছে। অথশাস্ত্রপঞ্জিত ডাক্তার এড়াম স্মিথ এই বিষয়ে চারটা নিয়ম নির্দেশ করিয়াছেন। এই চারিট নিয়ম অনুসারে করনিৰ্দ্ধারণ করিতে পারিলে রাজা ও প্রজী উভয়েরই সুবিধা হয়, কিন্তু এড়াম স্মিথ প্রদর্শিত নিয়মগুলি সৰ্ব্বাঙ্গসুন্দয়ৰূপে কার্ঘ্যে পরিণত হইতে পারে না। তথাপি যতদূর সম্ভব হয় উহা কার্ধ্যে পরিণত করিতে চেষ্টা করা গবৰ্ণমেণ্টের সর্বতোভাবে কৰ্ত্তব্য । এক্ষণে ঐ চারিট নিয়মের উল্লেখ করিয়া উহাদেয় ব্যাখা করা যাইতেছে। ১ । প্রত্যেক প্রস্ট্রীয়ই যত द्रृङ्गं সাধ্য আপন আপন ক্ষমতাশুসারে রাজ্যের ব্যয়নিৰ্বাহাৰ্থ টেকস দিয়া সাহায্য করা উচিত। অর্থাৎ রাজার রক্ষার অধীনে থাকিয়া যে ব্যক্তি যেরূপ উপার্জন করিয়া থাকে তাহার তদনুসারে টেকস দেওয়া কৰ্ত্তব্য। এই নিয়মের তাৎপর্ষ্য এই যে করসংস্থাপন বিষয়ে সমতা থাকা উচিত। এই নিয়ম অনুসারে করসংস্থাপন করিতে পরিলে ঐ সমতা রক্ষিত থাকে, নতুবা উহার বিপৰ্য্যয় হয়। ২। প্রত্যেক প্রজাকে কোন বিষয়ে কি পরিমাণে কর দিতে হুইবে তদ্বিষয় সুন্ধামুসুক্ষ্মরূপে নিৰ্দ্ধারিত থাকা আবশ্যক। কোন সময়ে দিতে হইবেক, কি প্রকারে দিতে হইবেক, ও কি পরিমাণে দিতে হইবেক, এই সমস্ত বিষয় বিশেষরূপে নিৰ্দ্ধারিত থাকা আবশ্যক। কারণ ইহার বৈপরীত হইলে *ঃসংগ্রাহক কৰ্ম্মচারীর করদ হাদিগের প্রতি যথেচ্ছাচার করিতে পারে ও প্রজাদিগকে উক্ত কৰ্ম্ম চারদিগের ক্ষমতাধীন হইতে হয়। এরূপ হইল উহার প্রজাদিগের প্রতি স্থত.াচার করিয়া অতিরিক্ত কর ধাৰ্য্য করতে পারে ও তাহাদিগের নিকট উৎকোচ গ্রহণ করিতে সমর্থ হয়। ফলতঃ করসংস্থাপন