পাতা:অষ্টাঙ্গ হৃদয় - বাগ্‌ভট.pdf/১৩৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


!აატში. ზtá यूबशन। vrak আপত্তি হইতে পারে যে, পূৰ্ব্বে চতুঃষষ্টি প্রকার স্নেহ প্রয়োগ কল্পনার মধ্যে অচ্ছপের স্নেহের উল্লেখ করা হইয়াছে, কিন্তু এখানে অচ্ছপেয় - মেহকে স্নেহপ্রয়োগ কল্পনা বলা - যাইতেছে না, সুতরাং পুৰ্ব্বাপর বিরোধ হইল ? ইহার মীমাংসা এই যে, অচ্ছপেয় স্নেহকে, (শুদ্ধ স্নেহপানকে ) কল্পনা বলা যাইবে না, কিন্তু মুদ্দীক্ষিকৰ্ণতৰ্পণাদি নিমিত্ত যে অচ্ছস্নেহ পান, তাহাই স্নেহপ্ৰয়োগ কল্পনা বলিয়া অভিহিত হইবে। সর্বপ্রকার স্নেহপানের মধ্যে অচ্ছপেয় মেহই প্রশস্ত, কারণ ইহা দ্বারা শরীরের মেহক্রিয় , ( তৰ্পণ মাৰ্দবাদি ) আশু गांक्षेिऊ श्रुंब थांक ॥ ७४ BB D BDBD DBD S BB BDB DDD SS S S DB DDBB DDDDBD DBLSSS DB মাত্রা দুই প্ৰহরে, জীর্ণ হয় তাহাকে হ্রস্বমাত্রা, যাহা চারিপ্রহরে জীর্ণ হয় তাহাকে মধ্যম মাgা এবং যে, মাত্র আটপ্রহরে পরিপাক প্রাপ্ত হয় তাহাকে, উত্তম মাত্রা কহে। এই ত্ৰিবিধ মাত্রার মধ্যে প্রথমে হ্রসীয়সী মাত্রা (যাহা হ্রস্ব মাত্রা অপেক্ষা শীঘ্ৰ জীৰ্ণ হয় ) প্রয়োগ করিবে। দোষাদি বিবেচনা করিয়া অর্থাৎ দোষ ভেষজ দেশ বল কাল শরীর আহার সত্ব সাত্ম্য ও প্রকৃতি বুঝিয়া প্ৰথমে হ্রস্ব মাত্রা ক্রমে মধ্যম ও উত্তম মাত্ৰা প্রয়োগ করিবে। অজ্ঞাতকোঠ পুরুষকে প্ৰথমেই অধিক মাত্রায় স্নেহ পান করাইলে অনেক স্থলে বিপদ উপস্থিত হইতে পারে। সেই জন্য প্ৰথমে ত্ৰিবিধ মাত্রার মধ্যে হ্রসীয়সী মাত্ৰাই প্ৰযোজ্য ॥ ১৯ সম্প্রতি শোধন শমন ও বৃংহণ ভেদে ত্ৰিবিধ মেহের কাল মাত্রা ও লক্ষণ কথিত হইতেছে। পুর্বদিনের আহার জীর্ণ হইলেই ক্ষুধার অপেক্ষা না করিয়া শোধনাৰ্থ (বিরোচনার্থ) বহুমাত্রায় অচ্ছস্নেহ (ব্রুেবল স্নেহ ) পান করাইবে। ক্ষুধার সময় স্নেহ পান, করাইলে তাহা জঠরাগ্নির দীপ্তিহেতু শোধন কাৰ্য্য না করিয়াই 'জীৰ্ণ হইয়া যায়। শমন স্নেহ রোগের শাস্তির জন্য প্রয়োগ করা হয়। ক্ষুধার সময় "অন্নাদি ”ভক্ষ্য দ্রব্যের সহিত না মিশাইয়া শমনার্থ কেবল স্নেহ মধ্যম মাত্রায় সেবন করাইবে। কারণ তৎকালে স্রোতঃসমূহ বিশুদ্ধ থাকায় পীত স্নেহ সৰ্ব্বশরীরে ব্যাপ্ত হইয়া যত্র তত্রস্থ কুপিত দোষের শমন করিয়া থাকে ৷ ২০২১ ... " ংহণ স্নেহ মাংসারত্ন” ও মন্ত্যাদির এবং ভক্তের সহিত, অতি অল্প মাত্রায় প্রয়োগ করিতে হয়। এই সভক্ত (অন্নমিশ্ৰিত) স্নেহ বালক বৃদ্ধ পিপাসাৰ্ত্ত স্নেহন্বেষী মদ্যপায়ী নিত্য স্ত্রীসঙ্গরত নিত্যস্নেহসেবী মন্দাগ্নি সুখী ক্লেশভীরু মূহুকোষ্ঠ অল্পদোষান্বিত ও কৃশ ব্যক্তিদের °f( eq१ औष्ठंताि ङेक८न्न श्डिकब्र•॥ २२॥२७ এই স্নেহ, ভোজনের পুর্তে সেবিত হইলে শরীরের অগ্নাভাগের ভোজনের মধ্যকালে সেবিত হইলে দেহের মধ্যভাগের এবং ভোজনের পর সেবন কুরিলে শরীরের উর্দুভাগের রোগনাশ ও বালবৃদ্ধি করিয়া থাকে ॥ ২৪ আচ্ছাস্নেহ পান করিয়া উষ্ণ জল অনুপান-করিবে। উষ্ণ জল অনুপান করিলে পীত দেহ সুখে পরিপাক পায় এবং স্নেহলিপ্ত মুখেরও শুদ্ধি হইয়া থাকে। কিন্তু উষ্ণবীৰ্য্য তোেবর স্নেহ (তৈল) বা ভগ্নাতক তৈল পান করিয়া উষ্ণ জল অনুপান করিবে না। স্নেহপানের অনেকক্ষণ