পাতা:অষ্টাঙ্গ হৃদয় - বাগ্‌ভট.pdf/১৫১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* ve) সূত্রস্থান। ৯৯ ইবে। কিন্তু উপরি-উক্ত ফলবৰ্ত্তি প্রয়োগাদি যত্নদ্বারা নিরূহ প্ৰত্যাবৃত্ত হইলে অন্য বস্তি প্রয়োগ ऐप्लिङ at to সম্যক নিরূহ লক্ষণ বিরিক্তবৎ জানিবে অর্থাৎ সম্যক্বিরোচনের হৃৎকুক্ষিগুদ্ধিপ্রভৃতি যে লক্ষণ, সম্যক নিরূহেরও সেই লক্ষণ অবগত হইবে। নিরূহের সম্যক যোগ হইলে রোগিকে ঈষদুষ্ণজলে স্নান করাইয়া জঙ্গল মাংসের অধন রসের সহিত অন্ন ভোজন করাইবে। নিগ্ৰহবন্তি, বাতবিকারশাস্তির জন্য প্ৰযুক্ত দুইয়া থাকে, সেই জন্য নিরূহ• বস্তির পর মাংসরস ও অন্ন || ts নিরূহবন্তি দ্বারা দোষসমূহ প্ৰচলিত হওয়ায় যে সকল রোগ উপস্থিত হয়, ঈষদুষ্ণ জলে স্নান ও মাংসারস্যযুক্ত অন্নভোজনে তাহদের শান্তি হইয়া থাকে। অতএব এই বিধি, অবশ্য পালনীয় ৷৷ ৫২ • O O . . নিরূহান্তে বাতপীড়িত ব্যক্তিকে সদ্যঃ (সেই দিনেই ) ,অনুবাসন বস্তি দিবে। স্নেহ পানের সম্যকযোগ, হীনযোগ ও অতিযোগ লক্ষণের ন্যায় অনুবাসনেরও ৷সম্যক যোগ, হীন যোগ ও অতিযোগ লক্ষণ অবগত হইবে ॥ ৫৩ অনুবাসনের অপর সম্যকৃযোগলক্ষণ-অনুবাসনের স্নেহ, কোঠাভ্যন্তরে অল্পক্ষিণ অবস্থিত হইয়া মলের সহিত নিৰ্গত এবং বায়ু অনুলেমগামী হইলে তাহাকে সিদ্ধ (অভিমত কাৰ্য্যকারি ) অনুবাসন কহে৷ ". শ্লেষ্মবিকারে একটী বা তিনটী, পিত্তজ রোগে পচিটী বা স্নাতকী এবং বাতজরোগে নয়টা বা এগারটী স্নেহৰাস্তি প্ৰকল্পনা করিবে প্রয়োজন হইলে ইহার অধিকও অযুগ স্নেহবস্তি কল্পনা করা যায়। স্নেহবন্তি প্রদানের পর পুনর্বাের আস্থাপন বন্তি প্রয়োগ করিবে ॥৫৫ • আস্থাপন ক্রিয়ার পর শ্লেষ্মপ্রধান ব্যক্তিকে মুগাদিযুষের সহিত, পিত্তপ্রধান ব্যক্তিকে দুগ্ধের সহিত এবং বাত-প্রধান ব্যক্তিকে মাংসািরসের সহিত ख *||५||ा नििराः ॥ ८७ বাতবিষয়ে একটী স্নিগ্ধবন্তি হিতকর। দশমূল্যাদির কাথে তেউড়ীচুর্ণ ও সৈন্ধব লবণ মিশাইয়া তাঁহা তৈলাদি দ্বারা স্নিগ্ধ, মধুর অন্ন লবণ রসান্বিত ও উষ্ণু” করিয়া তন্দ্বারা একটী ব্যক্তি প্রয়োগ করিবে। ৫৭ 嘲 পিত্ত বিষয়ে মধুর ও শীতল দুইটী বস্তি প্রযোজ্য। ন্যগ্রোধাদিগণের কাখে পদ্মকাদিগণের কৰ্ক চিনি, দ্বত, দুগ্ধ, ইক্ষুরস ও মধু মিশাইয়া তন্দ্বারা দুইটী বন্তি দিবে। ॥ ৫৮ কফ বিষয়ে তীক্ষ উষ্ণ ও কটুরিস যুক্ত তিনটা বস্তি প্রদেয়। আন্নাথধাদিগণের কাথে বৎসকাদি গণের কঙ্ক, মধু ও গােমুত্র মিশাইরা রক্ষ অবস্থায় তদ্বারা ৩টা বন্তি প্রয়োগ করিলে ॥৫৯ সন্নিপাতেও তিনটী বস্তি প্রয়োগ করিতে হয়। কারুণ তিনটী বস্তি দ্বারা যথাক্রমে তিন - দোষ নিরাকৃত হয়। এই হেতু অন্য চিকিৎসকগণ তিনটীর অধিক বন্তি ইচ্ছা করেন না। ষ্ঠাহারা বলেন যে, তিনটী বন্তি দ্বারা বাতাদি তিনটী দোষ নিৱৰ্ত্তিত হয়, চতুর্থ দোষ নাই, সুতরাং কাহাকে লক্ষ্য করিয়া চতুৰ্থ বস্তি দেওয়া যাইবে ॥ ৬০॥৬১

  • অপর চিকিৎসকগণ বলিয়া থাকেন যে, দোষের উৎক্লেশন শোধন ও শমন qहै डिन @कांग्र दख्रिद्धे खाणी: कद्रन कब्रिंद ॥ ९४२