পাতা:অষ্টাঙ্গ হৃদয় - বাগ্‌ভট.pdf/১৯৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


' ऽ उ* ] * শারীরস্থান। • - ৯৪৫ স্বামী ও ভৃত্যবর্গ কর্তৃক প্রিয় ও হিতকর আহারবিহারাদি দ্বারা গর্ভিণীর যে উপাচার ( সেবা ) তাম্বারা গর্ভ ধূত ( রক্ষিত ) হইয়া থাকে। অর্থাৎ আকালে নষ্ট হয় না। নবনীত স্বত ও ক্ষীরাদি যথাসাত্ম্য পথ্য প্রদান দ্বারা গর্ভবতী স্ত্রীর সর্বদা সেবা করিবে ॥ ৪৮ গর্ভিণীর বর্জনীয়। অতিমৈথুন, আয়াসজনক কৰ্ম্ম, ভারবহন, গুরু-উত্তরীয় বস্ত্ৰধারণ, অকালে নিদ্রা ও জাগুৱা (দ্বিৱানিদ্রা ও রাত্ৰিজাগরণ), কঠিন ও উৎকটু আসন, শোক, ক্ৰোধ, ভয়, উদ্বেগ, মলমূত্রাদির বেগধারণ, শ্ৰদ্ধাবিনিগ্রহ, উপবাস, পথশ্ৰম এবং তীক্ষ উষ্ণ গুরু ও বিষ্টভিদ্রব্য ভোজন, রক্তবস্ত্ৰ পরিধান, গৰ্ত্ত ও কুপ নিরীক্ষণ, মদ্যপান, মাংসভোজন, উত্তান (চিৎ হইয়া শোওয়া ) শয়ন, রক্তমোক্ষণ, বমনবিরোচনাদি শুদ্ধি এবং অভিজ্ঞ বৃদ্ধ স্ত্রীগণ যাহা যাহা ইচ্ছা করেন না-তৎসমস্ত বিষয় গর্ভিণী স্ত্রী ত্যাগ করিবেন। অষ্টম মাসের পূর্বে গর্ভিণীকে অনুবাসন বস্তি দিবে না, অষ্টমূমাসে অনুবাসন বস্তি প্রয়োগ করিবে। এই সকল বর্জনীয় বিষয় সেবন করিলে গর্ভিণীর আম গর্ভস্রাব হয় বা কুক্ষিমধ্যে শুষ্ক হয় অথবা মরিয়া যায়৷ ৪৯-৫২ বাতবৰ্দ্ধক দ্রব্য সেবন করিলে গর্ভ কুজ অন্ধ জড় ও বামন ; পিত্তজনক দ্রব্য সেবন করিলে খালিত্য (টাক) যুক্ত ও পিঙ্গলৰীর্ণ এবং কাফকার দ্রব্য সেবনে খিত্ররোগ যুক্ত ༄ ༧it་སྤུས4 རྔ། ། ༠ ” • গর্ভিণীর কোনরূপ ব্যাদি জন্মিলে তাহা মূঢ় সুখকর ও অতীক্ষা ঔষধ দ্বারা প্রশমিত করিবে ॥ ৫৪ • ', . . . . গর্ভিণীর দ্বিতীয় মাসে সেই কললু গর্ভ ঘন পেশী বঁ। আঁৰ্ব্বদাকার হয় । ( ঘন গাঢ়, পেশী-মাংসপেশীসদৃশ এবং অৰ্ব্বন্দ.অৰ্দ্ধবিভক্ত গোলাকার বস্তু সদৃশ)। এই ঘনাদিরূপ গর্ভ হইতে যথাক্রমে পুরুষ স্ত্রী ও ক্লাব সন্তান হয়। অর্থাৎ ঘনগ্নৰ্ভ হইতে পুরুষ, পেশী হইতে স্ত্রী এবং অৰ্ব্বদাকার গর্ভ হইতে নপুংসক জন্মে৷ • p ব্যক্তগর্ভর লক্ষণ। শরীরের ক্ষীণতা, উদরের গুরুত্ব, মূৰ্ছা, বমি, অরুচি, জুস্তা, মুখ, প্রসেক" (মুখ দিঙ্গাজল উঠা ), অবসাদ, রোমাবলীর উদগম, অন্নভোজনে ইচ্ছ, স্তনের পীনতা, স্তনে দুগ্ধোৎপত্তি, চুচুকর (স্তন্মগ্রভাগের বোটার)” কৃষ্ণবর্ণতা, পাদদ্বয়ে শোখ, ভুক্তায়ের বিদগ্ধতা , কেহু, বলেন শরীরে দাহ ) এবং নানাপ্রকার শ্রদ্ধা (পথ্যাপাধ্যাদি বিষয়ে অভিলাষ ) (c- . — গর্ভিণীর শ্রদ্ধা কোন বিষয়ে স্পৃহা) উৎপন্ন দুইলে তাঁহাকে অপথ্য দেওয়া উচিত। কিনা। এই সন্দেহ নিরসনার্থকথিত হইতেছে-গর্ভুের হৃদয় মাতৃঅংশজাত ও মাতৃহৃদয়ের গৃহিত সম্বন্ধ। পরস্পর হৃদয়ের সম্বন্ধ থাকায় গৰ্ভিগীকে দ্বিহৃদয়া বা দৌহৃদিনী বলে। এসময়ে গৰ্জিলীহাদয় সন্তাপ্ত হইলে গর্ভের হৃদয়ও সন্তপ্ত হইয়া থাকে। পরায়িত্ত-হৃদয়বিলিয়া গর্ভিণী তৎকালে স্বস্বভাবোচিত অভিলাষ ব্যতীত অন্য নানাপ্রকার অভিলাষ করিয়া থাকেনু । গর্ভণী অভিলাষ ও গর্ভের অতিলাষ একই বলিয়া গণ্য করিতে হইবে। সুতরাং এ অবস্থায় শ্রদ্ধার পুরাণ না করা অন্যায়। সেই মন্ত তাঁহাকে অপথ্য দ্রব্যও হিন্তর্সংযুক্ত করিয়া মল্প মাত্রায় দেওয়া উচিত। কারণ শ্ৰদ্ধাবিঘাতে গর্ভের বিকৃতি বা চুতি হইতে পারে। অতএব কখনই গর্ভিণীর শ্রদ্ধা বিঘাত করিবে না। - শ্ৰদ্ধার বন্ত দিলে বীৰ্য্যবান চিরজীবী পুত্র প্রসব করিয়া থাকে ॥ ৫৮-৬৭