পাতা:অষ্টাঙ্গ হৃদয় - বাগ্‌ভট.pdf/৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


à e অষ্টাঙ্গাহৃদয় । [ २ अ অমুক ব্যক্তি আমার শত্রু বা আমি অমুকের শত্ৰু, একথা কাহারও নিকট “প্ৰকাশ করিবে না । নিজের অপমান বা প্রভুর স্নেহহীনতা কাহাকেও বলিবে না। ॥ ২৮ পররাধাননিপুণ ব্যক্তি লোকের প্রকৃতি বুঝিয়া যে যাহাতে পরিতুষ্ট হয়, তাহার প্রতি সেইরূপ ব্যবহার করিবেন ॥ ২৯ জিহ্বা প্রভৃতি ইন্দ্ৰিয়সমূহকে কুৎসিত অন্ন দ্বায় পীড়িত করিবে না কিংবা প্রলোভন বস্তু দ্বারা ইহাদিগের বিলাস বৰ্দ্ধিত করিবে না। ধৰ্ম্ম অর্থ ও কাম এই তিনটীকে ত্রিবর্গ কহে । ত্ৰিবৰ্গশূন্য কোন উদ্যম করিবে না। যাহা উক্ত ত্রিবর্গের অবিরোধী এইরূপ কাৰ্য করিবে ॥ ৩০ সৰ্ব্বধৰ্ম্মে (সকল প্রকার আচার ব্যবহারে ) মধ্যম বৃত্তির অনুসরণ করিবে। অর্থাৎ কোন বিষয়ে একান্ত আসক্তি ভাল নহে। নখ রোম শ্মশ্র যথাবিধি ( ছোট করিয়া ) কৰ্ত্তন করিবে। পাদদ্বয় ও মলমাৰ্গ সমূহ নিৰ্ম্মল রাখিবে ॥ ৩১ নিত্য স্নান ও সুগন্ধিদ্রব্য ব্যবহার করিবে । অনুদ্ধত উজ্জল ও মনোজ্ঞ ( জীৰ্ণ মলিন বস্ত্ৰাদি বজ্জিত ) বেশ ধারণ করিবে । সৰ্ব্বদা রত্ন ( স্ত্রীরক পদ্মরাগাদি মণি ), সিদ্ধমন্ত্র ( অপরাজিতাদি কবচ ) ও মহৌষধি বাহু গ্রীবাদিতে ধারণ করিবে ॥ ৩২ ভ্ৰমণকালে ছত্র ও পাদুকা ব্যবহার করিবে এবং সম্মুখে চারিহন্ত পৰ্যন্ত দৃষ্টি রাখিবে। কোন বিশেষ কষ্টসাধ্য কাৰ্য্যোপলক্ষে রাত্ৰিতে যাইতে হইলে হন্তে যষ্টি মস্তকে উষ্ণীষ ও সঙ্গে একজন সাহায্যকারী লোক লইবে ॥ ৩৩ চৈত্য ( বিশিষ্ট দেবতাধিষ্ঠিত অশ্বখ্যাদি বৃক্ষ), পূজ্য ব্যক্তি (গুরু পুত্রাদি ), দেবগৃহাদির ধ্বজ এবং অপ্রশস্ত চণ্ডালাদি ইহাদের ছায়া এবং ভস্ম, তুম, অশুদ্ধিদ্রব্য (বিষ্ঠাদি ), শর্করা (কঁকার ), লোষ্ট্র, দেবাৰ্চনাস্থান ও স্নানভূমি অতিক্রম করিবে না। ॥ ৬৪ বাহুদ্বারা সস্তরণ পূর্বক নদ উত্তীর্ণ হইবে না। অগ্নিরাশির অভিমুখে গমন করিবে না। সন্দিগ্ধ নৌকা ( শিথিল বন্ধন জীর্ণ বা অতিভারাক্রান্ত যে নীেকায় পার গমনে সন্দেহ হইবে সেই নৌকা ), উচ্চ-বৃক্ষ বা অশ্বাদি দুষ্টব্যানে আরোহণ করিবে না ৷৷ ৩৫ হস্তাদি দ্বারা মুখ না ঢাকিয়া হাঁচিবে না, হাসিবেন ও হাই তুলিবে না। অকারণে নাক বাড়িবে না এবং মাটীতে দাগ কাটিবে না। ॥ ৩৬ ‘ نه হস্তপদাদি দ্বারা বিরাদ্ধ চেষ্টা (বিকৃত ভঙ্গ) করিবে না। উৎকট ভাবে অধিকক্ষণ উপবেশন করিবে না। পরিষ্ঠ “ল (ঘৰ্ম্মোৎপত্তির ) পূর্বেই শরীর বাক্য ও মনের কার্য হইতে নিবৃত্ত হইবে ॥৩৭ উৰ্দ্ধজানুহইয়া অধিকক্ষণ থাকিবে না। রাত্ৰিতে তরুতলে, চত্বরে (তে-মাথায় অথবা যেখানে নগরবাসী বা গ্রামবাসী লোকেরা মিলিত হইয়া নানাবিধ কথাবাৰ্ত্ত কহে, তাহাকে চত্বর বলে ), চৈত্যসমীপে, চতুষ্পথে (চৌরাস্তায় ) ও দেবগৃহে থাকিবে না। ॥৩৮ বধ্যভূমি, নির্জন স্থান, জনশূন্য গৃহ ও শ্মশানে দিবসেও গমন করিবে না। রাত্রিতে এই সকল স্থানে অবশ্য যাইবে না। সূৰ্য্যকে সর্বপ্রকারে দেখিবে না। অর্থাৎ উদিত, অন্ত গমনোস্থ্যত বা জল ও আদর্শে প্ৰতিবিন্বিত কিংবা রাহুগ্ৰস্ত সুৰ্য্যকে দেখিবে না ৷৷ ৩৯