পাতা:অষ্টাঙ্গ হৃদয় - বাগ্‌ভট.pdf/৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


38 অষ্টাঙ্গাহৃদয় । [ ૭૬ দ্রব্য, ব্যায়াম ও সুৰ্যকিরণ ত্যাগ করিবে এবং লঘুপাক স্নিগ্ধ শীতল ও দ্রব দ্রব্য বিশেষতঃ বহুল । পরিমাণে মধুর দ্রব্য সেবন করিবে ॥ ২৮২৯ সুশীতল জলে স্নান করিয়া সশর্কর শক্ত, জলে গুলিয়া তাহা পান করিবে। এ সময়ে মন্ত পান করিবে না। যদি একান্ত পক্ষে মন্ত পান করিতে হয়, তাহা হইলে আতি অল্প মাত্রায় পান করিবে অথবা অনেকটা. জল মিশাইয়া পান করিবে। ইহার অন্যথা করিলে শোথ, শরীরের ऑिलिंब्लड्, फ्रांश ७ ८भाश्ः श्रेक्षा थांत ॥ ७०-७२ - 喃 কুন্দ সদৃশ বা চন্দ্ৰ সদৃশ শুক্লবৰ্ণ শালিতণ্ডুলের অন্ন জঙ্গল মাংসের সহিত ভোজন করিবে । অনতিঘন মাংসারস, রসালা রাগ ও মাড়ব সেবন করিবে। পঞ্চসারাপ্য গানক (সরবৎ) কদলী ফল ও কঁঠালের খণ্ড সহ একত্র ও অন্ন রসাযুক্ত করিয়া নূতন মৃৎপাত্রে রাখিয়া তাহা মৃৎগুক্তি ( মাটীর গুড়ি ) দ্বারা পান করিলে। পািটলা পুষ্প সুবাসিত কপূর্ব মিশ্ৰিত সুশীতল জল পান 6ि ॥ ७७-७d রাত্ৰিতে শশাঙ্ক কিরণ নামক ভক্ষ্য দ্রব্য ভক্ষণ করিয়া চন্দ্ৰ ও নক্ষত্র কিরণে শীতল, শর্কর সংযুক্ত মহিমদুগ্ধ পান করিবে। কপূরনাড়িকা নামক ভক্ষ্য দ্রব্যকে শশাঙ্ককিরণ কহে ॥ ৩৬ যে উপবনে আকাশচুম্বি সুবৃহৎ শাল ও তাল বৃক্ষ দ্বারা সূৰ্যরশ্মি রদ্ধ হইয়াছে, যে স্থানে দ্রাক্ষা স্তবক সমূহ মাধবীলতা দ্বারা আশ্লিষ্ট হইয়াছে, সেই উপবনে সুগন্ধি শীতল জল দ্বারা সিাচ্যমান পটালি ( পারদ ) বিশিষ্ট এবং সহকারের কিশলয় ও ফলগুচ্ছ পরিব্যাপ্ত বংশাদি নিৰ্ম্মিত গৃহে, বিকসিত পুষ্পপল্লব শোভিত সুকুমারস্পর্শ কদলীপত্র, কঙ্কলার, মৃণাল পদ্ম ও কুমুদ পুষ্প বিরচিত শয্যায় মধ্যাহ্নকালে সুৰ্য্যতাপাৰ্ত্ত হইয়া শয়ন করিবে । অথবা যে স্থানে পুস্তন্ত্রীর ( কাষ্ঠাদিনিৰ্ম্মিত স্ত্রীর আকৃতিবিশিষ্ট ছবিকে পুস্ত কহে) স্তন হস্ত ও বদন হইতে উশীর সুবাসিত বারি পতিত হইতেছে, এবংবিধ ধারাগৃহে (, ফোয়ারাযুক্ত গৃহে ) মধ্যাহ্নকালে সুৰ্য্যতাপীৰ্ত্ত হইয়া শয়ন করিবে ৷ ༦༣ -s ༠ এই সময়ে স্বাস্থচিত্ত চন্দনানুলিপ্তদেহ ও মাল্যধারী ব্যক্তি অতি সুক্ষ্মবন্ত্র পরিধান করিয়া এবং মদন ব্যাপারে নির্লিপ্ত হইয়া চন্দ্ৰকিরণবিছুরিত সৌধের উপর রাত্রিকালে অবস্থান করিবে। জলসিক্ত শাড়ী, তালবৃন্ত (‘ময়ূরপিচ্ছাদিকৃত তালবৃন্তসদৃশ ব্যজন বিশেষ) বিস্তৃত পদ্মপত্র, মৃদুসঞ্চালিত জলকণবর্ষি শীতল বায়ুর উৎক্ষেপ ( বুজন বিশেষ, কেহ বলেন ঢামর), স্ফটিক কাপুর গ্রথিত মালা, মল্লিকামাল, হরিচন্দনলাঞ্ছিত মুক্তাহার, মনোরম অব্যক্ত মধুরভানী শিশু সারিকা ও শুকপক্ষী, এবং মৃণালবলীয়ধারিণী প্রস্ফুটিতপদ্ম শোভিতা রমণীয়া দয়িতা গণ, সঞ্চারিণী পদ্মিনীর ন্যায় উক্ত স্বাস্থচিত্ত ব্যক্তির ক্লান্তি হরণ করিয়া থাকে। স্বস্থিচিত্ত বলিবার উদ্দেশ্য এই যে, সন্তপ্তচিত্ত ব্যক্তির কিছুতেই শান্তি হয় না ৷৷ ৪১-৪৫ ৷৷ বর্ষচৰ্য্যা । আদান ( উত্তরায়ণ ), কালে মানবের শরীর গ্লানিযুক্ত ও অগ্নি মন্দ হয়। বর্ষাকালে কালস্বভাবহেতু যুগপৎ কুপিত বাতাদি দোষ দ্বারা সেই মন্দ অগ্নি আরও হীন হইয়া থাকে। এসময়ে দোষ সকল কিরূপে। কখন একদা কুপিত হয় তাহা কথিত হইতেছে। বর্ষাকালে যখন আকাশ জলভারাক্রান্ত মেঘ দ্বারা আচ্ছন্ন হয়, সেই সময়ে দোষসমূহের দুষ্ট হইয়া থাকে।