পাতা:অহল্যাবাঈ - মণিলাল বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১৪৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S8& অহল্যাবাঈ রাখবার স্থান টুকু পৰ্যন্ত কোন চুলোয় নেই! তাই বলছি-থাকা হবে কোথায় ? সোমনাথ -সত্য কথা নারায়ণী, কোথায় গিয়ে দাড়াব! আমি যে এখন নিঃসম্বল নিরাশ্রয়, সংসারে যে আমার আপনার বলতে কেউ নেই! কোথায় যাব ? আশ্ৰয় কোথায় পাব ? নাবায়ণী ।-কেন প্ৰভু, বিশ্বপাতার এত বড় বিরাট সংসাব ! এর ভেতব আমাদের দাড়াবার স্থান নেই। এই উদার ধাবিত্রীর বক্ষে লক্ষ লক্ষ কোটী কোটী প্ৰাণী অবস্থান কবেছে ;-আমরা সেখানে একটু আশ্রয় পাব না ? নন্দজী -আর তোমাদের মাথার ওপর যে চকচকে ধারাল তলোয়ার টাঙােন রয়েছে—তার বুঝি কোন খবর রাখ না ? কোন চুলোয় গিয়ে আশ্ৰয় নেবে বল তো শুনি । পেশোয়া মাধবরাওয়ের আদেশে তঁর অধিকার থেকে আমরা নিৰ্বাসিত,-তারপর অহল্যাবাঈয়ের BBK D DDLSDDB DBBDBDBD DDD D DBL BBDBS গোবিন্দপন্থের হুকুমের কথা কি ভুলে গেছ ? তোমার কঁচা মাথা যে তার কাছে নিয়ে যেতে পারবে- সে লাখ টাকা বাকসিন্দ পাবে। বলি এ সব কথা কি মনে নেই ? সোমনাথ ।-উল-মাথার ভেতর আবার আগুন জ্বলে উঠলো ! নন্দজি । তুমি ঠিক কথাই বলেছ,-আমার মাথার ওপর তলোয়ার টােঙান আছে-আমার আশ্রয়-স্থান কোথাও নেই।-নারায়ণী ! এই মাত্র যে সুখের কল্পনাকে হৃদয়ে স্থান দিয়েছিলো, সঙ্গে সঙ্গে তা লুপ্ত হয়ে গেল। সংসার-সুখ আমাদের অদৃষ্ট নেই প্রিয়তমে। যদি সংসার পাতি, তাহলে গোবিন্দপন্থের হিংসাদীপ্ত ছুরি বুকে এসে পড়বে। না-না-সো যন্ত্রণা সন্ধু করতে পারব না,-আততায়ীর