পাতা:আগামীকাল - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


୯୩୬ ମଞ୍ଜ୍ ଏନ୍ଲୋiଡ଼୩ ! এককড়ি ও জলধি সশব্দে হেসে উঠল। মণিও ওদের হাসিতে যোগ দিল । হাসি থামিয়ে জলধি বললে, তোমার একী রূপে দেখছি অপরাপা ! মাথায় টপি, তা-ও আবার এলে সাইকেলে চেপে ! তোমায় যত দেখছি, ততই অবাক হচ্ছি। মণি । মণি হেসে বললে, পাইকেলটা সকল্যাণীদি সাফল্যের পরিষ্কার হিসেবে দিয়েছেন। কোলের ওপর রাখা সাহেবী ট্যাপটা দেখিয়ে বললে, আর এটা আমি নিজেই কিনে 缸孢1 এককড়ি বললে, সাইকেল চাপার বিদ্যেটাও যে তোমার রপ্ত করা আছে, জানা ছিল क्रा * ।। গ্রামের লোকে কে, কি ভাববে। তাই এতদিন বিদ্যেটা গোপনেই রেখেছিলাম এককডিদা। দতিনদিন আগে এক আকস্মিক বিপদের মখে ছেলেবেলায় শেখা বিদ্যেটা প্রয়োগ না করে উপায় ছিল না। ধরাই যখন পড়ে গিয়েছি- কথাটা শেষ না করেই মণি সরবে। হেসে উঠল । এককড়ি বললে, তারপর বল মণি, হঠাৎ কি মনে করে ? মণি বললে, একটা আখদার নিয়ে এসেছি। এককডিদা। অবশ্য আমার ব্যক্তিগত ব্যাপার নয়, নারী-কল্যাণসমিতির পক্ষ থেকে আপনাকে অননুরোধ করতে এসেছি । সকল্যাণীদি আজ-কালের মধ্যে সংস্থার প্যাডে চিঠি লিখে হয় নিজেই আসবেন, নতুবা প্রতিনিধি কাউকে পাঠিয়ে ফমালিটি রক্ষা করবেন । বলতে পারেন, আমি আগে ভাগে ব্যক্তিগত হৃদ্যতার সযোগটাকুর সদ্ব্যবহার করতে এসেছি। এককড়ি হেসে বললে, ভণিতা রেখে আসল ব্যাপারটা কি, বল ত মণি ? আগামী শঙ্কবার আমাদের নারী কল্যাণ-সমিতির বাৎসরিক অধিবেশন এ-বছর এখানেই হচ্ছে, আশা করি। অবশ্যই শাণে থাকবেন ? হাঁ, শানেছি। মিসেস সকল্যাণী মিটারের সঙ্গে তোমার মত একজন সর্বগণাশ্বিবতার মিলন যখন হয়েছে - এককড়ির কথা শেষ হবার আগেই জলধি বলে উঠল, এককডিদা, বলন মণিকাঞ্চন-যোগ হয়েছে। মণি’র বিভিন্নমখী প্রতিভা আর মিসেস সকল্যাণী মিটারের কাঞ্চন-মদ্ৰা অৰ্থাৎ ধন-সম্পদ, দইয়ে মিলে এবার সত্যই নারী জাগতির আলোড়ন ঘটবে। আমি দিব্য চোখে দেখতে পাচ্ছি। এককড়ি বললে, আমরা একটি আগেই তোমাদের নারী-কাল্যাণ-সমিতির কথা আলোচনা করছিলাম। আমরা অর্থাৎ সবদেশ-কল্যাণ-সমিতির সদস্যরা তোমাদের কাছাকাছি-পাশাপাশি থাকব। মনস্থ করেছি ; প্রয়োজনে আমাদের সাবিক সাহায্যসহযোগিতা পাবে প্রতিশ্রুতি দিচিছ মণি । আমি কিন্তু আপনাকে ও জলধিন্দাকে আরও কাছে, আমাদেরই একজন মনে করছি। যাক, যে-কথা বলতে এসেছি, অধিবেশন চলাকালীনই আমরা এ গ্রামে একটা প্রসতি CAS