পাতা:আগামীকাল - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/৭৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হাঁ, ভদ্রলোক খাবই কারিত কম। অমায়িক, সরল সরল ব্যবহার দিয়ে মানষেকে আপন করে নেবার অসাধারণ ক্ষমতা রাখেন । DBDuD DDDS KB K D KEEL BDB DDS BDDB BBBBDLD BBD Y कुछप्रा, कि बढ़न् ? এককড়ি ঠোঁট থেকে নলটা নামিয়ে বললে সে-ত অবশ্যই। আর হবে না। ভায়া ওরা দ’জনই বিলেত ফেরতা । মণি বললে, তবে অধিবেশনের মোট ব্যয়ের একটা বড় ভগনাংশ সকল্যাণীন্দিই বহন 夺郊艾af চারদিক থেকে শতাধিক নারী-প্রতিনিধি" আসছেন। ওদের সাতদিনের থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করা । সম্মেলনের অন্যান্য খরচের কথা ছেড়ে দিলেও একশ’ সোয়াশ’ লোককে সাতদিন খাওয়াতেই।-- হাঁ একাকড়িদা, মোটা টাকার ব্যাপার } এককড়ি গড়গড়ির নীলটা নামিয়ে রেখে বললে, তোমরা একটি বোসো মণি, আমি এক্ষণ আসছি। কথা বলতে বলতে তিনি পাশের ঘরের দিকে গেলেন। মিনিট দয়েবের মধ্যেই ফিরে এসে এক গোছা, টাকা মণির দিকে এগিয়ে দিয়ে বললে, মণি, এতে গঢ়ি শ' টাকা আছে। তোমাদের আয়োজিত সমাহান যজ্ঞে এগালো খরচ করলে খশী হ’ব। মণি হেসে টাকাগলো নিয়ে বললে, আপনার মহত্বািটকু মাথা পেতে নিচ্ছি कवgन ! একটা কথা মনে রাখবে, নারীকে আপন ভাগ্য জয়’ করে নেবার যজ্ঞে তোমার এককড়িদার সাবিক সহযোগিতা থেকে কোনদিনই বঞ্চিত হবে না বোন । আগামীকালের নতুন সদস্যকে নারীর সঙ্গে হাত ধরাধরি করে পরিষেও স্বাগত জানাবে। নারীত্বের মহিমা ও গৌরব প্রতিস্ঠার মধ্য দিয়ে গড়ে উঠক নতুন ভারতবষী আত্মসচেতনার মধ্য দিয়ে জন্ম নিক নতুন সতী-সাবিত্রী । পরিষ-শাসিত সমাজ-ব্যবস্থাকে ভেঙে টকারো টুকরো করে দিয়ে আগামীকালের নতুন প্ৰভাতে সমান অধিকার নিয়ে নারী সদস্ভে মাথা উচু করে পরিষের পাশে গিয়ে দাঁড়াক । হাসি-কান্না সখ-দঃখে পরিষের সঙ্গে সমানভাবে ভাগ করে নিক । আজ একটিমাটেই প্রত্যাশা, আগামীকালের ফটেন্ত काळ झाष्ट्रष्ठ शिा । একাদশ পরিচ্ছেদ নারী-কল্যাণ-সমিতির অধিবেশনের কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে । মণি'র আহার-নিদ্রা ঘচে গেছে। সাইকেল নিয়ে চারদিকে ছাটোছটি করে অধিবেশনের কাজ সঠিভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রাণান্ত প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যেসব ডেলিগেট আসছেন ওদের থাকা-খাওয়া আপ্যায়ণের দায়িত্ব বতেছে মণি'র Գ8