পাতা:আগামীকাল - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/৮৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শর কয়ে প্ৰদেশ-কল্যাণ-সঙ্ঘের প্রতিটি সদস্য কাঁধে কাধ ঠেকিয়ে এদের বাষিক অধিবেশনকে সবাঙ্গ সন্দের করে তোলার জন্য প্রয়াসী । উদ্বোধনী-অনঙ্গঠান শহর হবার আধঘণ্টা আগেই অনন্ঠান-প্রাঙ্গণ উৎসাহী গ্রামবাসীদের উপস্থিতিতে গিজগিজ করতে লাগল। গোস্বচ্ছাসেবী ও সদস্যদের আন্তরিক প্রয়াসে অনন্ঠানের কাজকম সবই যেন জ্যামিতিক ছকের মত পরিচালিত হচ্ছে। সবই সপরিকল্পিত । জ্যামিতির ছকের মতই সছন্দিত, সশঙ্খিল আর সােষমামণ্ডিত । অনষ্ঠানে যারা যোগদান করেছে, সবাই এসেছে। উদার পরোপকারৱতী মন নিয়ে গ্রামোন্নয়ন, আর সমাজ সেবার মন্ত্রে দীক্ষিত হতে । যথা সময়ে অধিবেশনের উন্ধোধনী-অনাস্তান শরণ হ'ল। উদ্বোধক শ্রীমতী সকল্যাণী মিটার বক্তব্য রাখতে গিয়ে বললেন-অ্যাজ সমাজসেবার মন নিয়ে আমরা এখানে সমবেত হয়েছি । মানব প্রেমই বলেন আর দেশপ্রেমই বলেন, যে-ভাষাতেই, একে ব্যাখ্যা করা যাক না কেন, আমরা জানি, সবাইেব উদার করে অন্যের জন্য, দেশ ও দশের জন্য কোন কিছ. করার মানসিকতার নামই ত মানবপ্রেম আর দেশপ্রেম। আমাদের, অর্থাৎ নারী-কল্যাণ-সমিতির সদস্যদের সঙ্গে যোগ্য আত্মত্যাগের যথারীতি সম্মান ও মর্যাদা রক্ষার জন্য এগিয়ে আসতে পারলেই আমাদের প্রয়াস সার্থকতায় পরিপািণ হয়ে উঠতে পারে। সমাজসেবামলক পরিকল্পনা যা কিছ আমরা গ্রহণ করতে চলেছি তাদের বাস্তবায়িত করতে নারী-পরিষ উভয়ের সম্মিলিত প্রয়াস ভিন্ন কিছুতেই সম্ভব। নয় । যদিও নারীই উদ্যোগ নেবে, তাকে সাফল্য মন্ডিত করতে কাঁধ লাগবে পরিষ। নারী ছাড়া পরষ। যেমন অপৰ্ণ, ঠিক তেমনি পরিষ ছাড়া নারীও অপর্ণ *卒哥图目 আমরা এতদিন হাজােগ আর বঙ্গারকিতে মেতে ছিলাম। আমাদের আত্মসচেতনা বোধ ছিল বিসমিতির অতলে তলিয়ে । আমাদের কথা আর কাজের মধ্যে ফাঁকি ছিল বিস্তর। আসলের চেয়ে খাদই ছিল বেশী । দেশ ও সমাজ ধ্রুমেই মহাশিমশানের রােপ নিতে চলেছে। আমরা তিলে তিলে এগিয়ে চলেছি। ধনংসের দিকে । যেদিকে তাকাই শাখাই অবক্ষয়ের চিহ্ন দাঁত বের করে উপহাস করে সমগ্ৰ দেশবাসীকে। আর ফাঁকা বলিতে আমরা ভুলব না। সম্ঠ সমাজ ব্যবস্থা ও সন্দর সমাজ গড়ে তুলতে চাই একনিষ্ঠ মন আর ঐকান্তিক সাধনা । সে সাধনা ত আত্মত্যাগ ভিয় সিদ্ধ হতে পারে না। তাই নারী-পরিষ সবাইকে সাদরে আহবান জানাই, আজ বজরাকি ছেড়ে সবার কাছে, সবার পাশে এসে দাঁড়াতে হবে শ্বিবধাহীন মন নিয়ে । সবাই ব্ৰতী হতে হবে। শোষণ হীন, বিভেদহীন সনিমলি আগামীকালকে স্বাগত জানাতে। পথিবীর যেদিকে দটিপাত করবেন, দেখতে পাবেন সবল নারী-জাগরণের জোয়ার বয়ে চলেছে। পারণো বস্তাপচা সমাজ-ব্যবস্থাকে ধালিসাৎ করে দিয়ে নতুনের ব্লতে সবাই আজি ব্ৰতী ! আমরা ? ভারতবষের নারীরা ? আমরা কি আজও উট পাখীর 8