পাতা:আজ কাল পরশুর গল্প.pdf/১২৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


■ 爾 平t 可* 羽 的可引研 মুছে দামোদর বলে, ‘হ্যা, শালারা সময় নিল বেগতিক দেখে। সাতাশ 丐命时白 একে দুয়ে দামোদরের অন্য সাক্ষীরা এসে সেখানে জোটে, মোট পাঁচজন। মাথার কাপড় চাপা আরেকটু টেনে দেয়। আগে অনেকবার ভেবেছে, এখন অনেকবার ভাবে, তসরে তাকে কি ছাই মানিয়েছে কে জানে--আর কপালের প্রকাণ্ড চওড়া সিঁদুরের ফোটায়। এ বুদ্ধিটা বাতলিয়েছে বুদ্ধিমান কেদার উকিল। হাকিম নাকি পরম ধাৰ্ম্মিক। এসব দেখলে মন ভেজে । কিন্তু কই ভিজল বুড়োর মন, ওরা আব্দার করতেই তো মুলতুবী করে দিল। মরণও হয়না বুড়ো শকুনটার ! সাক্ষীরা তাদের গায়েরি লোক। মামলা মুলতুবি হওয়ায় তারা খুসী না অখুশী হয়েছে ঠিক বোঝা যায় না। অহঙ্কারে শীর্ণ বুক ফোলাবার চেষ্টা করে সক্রোধে তারা ঘোষণা করে যে রসুল মিয়াকে আজ শেষ করে দিয়েছিল, বড় বঁচা বেঁচে গেছে। চালাকি করে। তারা যেle সত্যই রাগ করেছে। অথচ সাক্ষী দিতে আসবার সুযোগ অনেকদিন বড়ল বলে, আবার কিছু আদায় করা যাবে বলে, ভাবটাও ঠিক যেন Vos betws 99e a V সাক্ষীদের মধ্যে গোঁসাই একেবারে চাক্ষুষ। গায়ের গলাবদ্ধ ফতুয়াটার মতোই তার মুখ ময়লা, টিলে আর ছেড়া ছেড়া। সে উৎসাহে ফেলে ফেলে বলে, “ভাবিছ কেন ভায়, তালিম দেয়া মিছে সাক্ষী ভো নই যে জেরায় কুপোকাৎ হব। দিক না উকিল যাকে খুলী, কারুক না জেরা যদিন পারে । নিক না সময় ।” AÑo