পাতা:আজ কাল পরশুর গল্প.pdf/১৩১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


KTTRTK7 SITT K7 {। পুরাণে বলে একদা নর-রূপী ভগবান সুানরতা গোপিনীদের বস্ত্ৰ অপহরণ করে নিয়ে তাদের অন্তর পরীক্ষা করেছিলেন—বহুকাল পরে আবার তিনি-এবার অদৃশ্য থেকে তঁর প্রতিনিধিদের দিয়ে, সমগ্ৰ বাংলা দেশের নর-নারীর বস্ত্র অপহরণ করে নিয়ে, কি পায়ীক্ষা করে। দেখছেন, তা তিনিই জানেন-তবে দুঃশাসনকে জব্দ করে বস্ত্ৰহীন হওয়ার নিদারুণ লজ্জা থেকে দ্রৌপদীকে তিনিই রক্ষা করেছিলেন, হে রাঘব মালাকার, জেলে বসে ফাটা কপালে মলম দিতে দিতে অন্তত সেই কথা স্মরণ করে মনকে সান্তনা দিও-আশাকরি এই ছোট্ট কাহিনীটি পড়ার পর আপনিও ঠিক এই কথাই বলবেন•••] রাঘব বাঁচবে কি মরবে। ঠিক নেই। লাঠির ঘায়ে মাথাটা তার ফেটে চৌচির হয়ে গেছে । ফুলবাড়ীর চৌমাথা থেকে নামমাত্র পথটা মাঠ জিলা বন-বাদাড়ের ভিতর দিয়ে দু’ক্রোশ তফাতে মালদিয়া গিয়েেেছ । এই দু'ক্ৰোশের মধ্যে গা বলতে কিছু নেই, এখানে ওখানে কতগুলি কুঁড়ে জড়ো করা "বসতি আছে মাত্র। হাটবারের দিন কিছু লোক চলাচল করে পথ দিয়ে, অন্যদিন সন্ধ্যায়। পথটা থাকে প্ৰায় জনহীন । নির্জন হোক, পথটা নিরাপদ। গত কয়েক বছরের মধ্যে এ “পথে কোন পথিকের বিপদ ঘটেনি। বছর তিনেক আগে দিনদুপুরে একজনকে পাগলা শেয়ালে কামড়েছিল শোনা যায়। কেষ্টরামের SS