পাতা:আজ কাল পরশুর গল্প.pdf/১৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আ জা কা লা পা র শু। র গ লম এক রাতে দু’টো মদ এলে, কামড়ে দিয়ে বাদাড়ে পালিয়ে বঁাচলাম এতটুকুর জন্যে । দিশে মিশে ঠিক রইল না। আর, গেলাম সদরে চলে।” “দাসমশায় তো খুব করেছেন মোদের জন্যে ।” রামপদ বলে চাপা। বঁটাৰ্কালো সুরে - যা তুই, নেয়ে আয় গা ।” শোলের ঝাল দিয়ে মুক্ত বসেছে ভাত খেতে, বাইরে থেকে ঘনশ্যাম দাসের হঁক আসে ; রামপদ । A “তুই খা ।” বলে রামপদ বাইরে যায়। জন-পাঁচেক সঙ্গীকে সঙ্গে নিয়ে ঘনশ্যাম এসে দাড়িয়েছে সরকারী সমনজারীর পেয়াদার মতো গরম গাম্ভীৰ্য্য নিয়ে। শঙ্কর এসেছিল একটু আগে, ঘনশ্যামদের আবির্ভাবে সুরমাদের যাওয়া হয়নি। ‘বৌ এসেছে রামপদ ?” “আজ্ঞে।” । “ঘরে নিয়েছিস ?” 'डांख् ।' ‘বার করে দে - এই দণ্ডে । যারা এনেছে তাদের সঙ্গে ফিরে যাক ৷” “ভাত খাচ্ছে।” রামপদ’র ভাবসাব জবাব-ভঙ্গি কিছুই ভালো লাগে না ঘনশ্যামদের। টেকো নন্দী শুধোয়, “তোর মতলব কী ? রামপদ ঘাড় কাত করে - আজ্ঞে ।” “বোঁকে রাখবি ঘরে ?”