পাতা:আজ কাল পরশুর গল্প.pdf/৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


vel U < e Pt 3 g 3 5 6 শাড়ীখানা বুঝি, দামীই হবে। আর মিহিই হবে মুক্তার, সাধনা আর সুরমার কাপড়ের চেয়ে। এর চেয়ে কমদামী ময়লা শাড়ী মুক্তার নেই। নইলে তাই পরে সে গায়ে ফিরত । তার বুক কঁাপিছে, গা কঁপিছে, মুখ শুকিয়ে গেছে। মোটা চট মুড়ি দিয়ে বস্তা হয়ে আসতে পারলে বঁাচত, মানুষ যাতে চিনতে না Φζξ চিনতে পারা হয়তো কিছু কঠিন হত। কিন্তু মানসুকিয়ার কে না জানে মুক্ত আজ গায়ে ফিরছে। বাবুরা আর ম-ঠাকরুণরা রামপদ’র বেীকে উদ্ধার করে ফিরিয়ে এনে দিচ্ছে রামপদ’র ६ । চারটি বাঁশের খুটির ওপরে হোগলার একটু ছাউনি—গগনের পানবিড়ির দোকান। পিছনের বড় গাছটার ডালপালার ছায়া এখন চওড়া করেছে হোগলার ছায়া। গাছের গুড়িটা প্ৰায় নালার মধ্যে ও পাশের ধার ঘেষে, নইলে গুড়ি ঘেষে। বসতে পারলে হোগলার ছাউনিটুকুও গগনের তুলতে হত না । ক’জন বিমুচ্ছিল বাঁচবার চেষ্টার কষ্টে, খানিকটা তারা সজীব হয়ে ওঠে। বুড়ো সুদাসের চোয়ালের হাড় প্ৰকাণ্ড, এমন ভাবে ঠেলে বারিয়েছে যে পাঁজরের হাড় না গুণে ওখানে নজর আটকে যায়। “রামের বৌটা। তবে এল ? “তই তো দেখি।” নিকুঞ্জ বলে, তার আধ-পোড়া বিড়িটা এই বিশেষ উপলক্ষে ধরিয়ে ফেলবে কি না ভাবতে ভাবতে । এক পয়সার চারটে বিড়ি কিনেছিল কাল। আধখানা আছে। R