পাতা:আজ কাল পরশুর গল্প.pdf/৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


可t西夺t可叶可°有外两 ঘনশ্যামের টিনের চালার আড়ত থেকে গোকুল চার জনের ঠিক সামনে দিয়ে রাস্তা পেরোবার ছলে ঘনিষ্ঠ দর্শনের পুলক লাভ করে এদের সঙ্গে এসে দাড়ায় । গদার বেী মারা গেছে। ও-বছর। ওরা খানিকটা গায়ের দিকে এগিয়ে গেলে সে মুখ বঁকিয়ে বলে, “রাম নেবে ওকে ?” ‘না নেবে? তো না নেবে। ওর বয়ে গেল।” যোয়ান গোকুল বলে, ঘনশ্যামের আড়তে কাজ করে মোটামুটি পেট ভরে খেতে পাওয়ার v୭/G | সুদাস কেমন হতাশার সুরে বলে, “উচিত তো না ঘরে নেয়া ।” গোকুলকে সে ধমক দেয় না ‘তুই থাম ছোড়া’ বলে”। তীব্র কুৎসিত মন্তব্য করে না মুক্তাকে ফিরিয়ে নেবার কল্পনারও বিরুদ্ধে ! গোকুলের কথাতেই যেন প্ৰকারান্তরে সায় দিয়ে যোগ দেয়, ফিরবার কি দরাকর ছিল ছুড়ির ? () গোকুল ইয়ার্কি দিয়ে কথাটা বলেছিল। কিন্তু ইয়ার্কিতেও বাস্তব যুক্তি টোল খায় না, হাল্কা হয় না। ছেড়া ময়লা ন্যাকড়-জড়ানো কঙ্কাল ছিল মুক্তা। সকলের মতো সুদাসেরও চোখে পড়েছে মুক্তার শাড়ীখানা । সকলের মতো সে-ও টের পেয়েছে মুক্তর দেহটি আজ বেশ পরিপুষ্ট। আঁক-বাঁকা রাস্তা, এপাড়া ওপাড়া হয়ে, পুকুর ডোবা বঁাশবন আমবাগান গাছপালা জঙ্গলে শান্ত । মুক্ত চেনে সংক্ষেপ পথ। যতটা পারা যায় বসতি এড়িয়ে চলতে আরও সে পথ সংক্ষেপ করে প্ৰায় অগম্য জঙ্গল মাঠ বাগানে তাদের পথ দেখিয়ে নিয়ে চলে । (9