পাতা:আজ কাল পরশুর গল্প.pdf/৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ड्या एका की व् • ब्रु ९७ झ क्रों द्व “ঠিক । লতিফের সেচা জমির চেয়ে ভাল ফসল দিয়েছে গতবার।” গোবৰ্দ্ধন এক গাছতলায় দাড়িয়ে পড়ে।—“শোন বলি, জনা । না বেচলে হয় না জমিটা ? এক কাজ করি আয়। না বেচে বঁধা রাখি, পারি তো ছাড়িয়ে নেব দু’জনে মিলে।” চক্কোত্তি মশায় কি রাজী হবে ? : ‘রাজী না হয় তো মধুসো'র কাছে বঁধা দেব। নয় তো রাথতলার নিকুঞ্জকে। বেচে দিলে তো গেল জন্মের মত। যদি রাখা যায়!” গাছতলায় দাড়িয়ে দাড়িয়ে গোবৰ্দ্ধন ও জনাৰ্দন—অনন্ত হাতীর দুই ছেলে, কথাটা বিচার ও বিবেচনা ক’রে দেখতে থাকে। দেখে লোকের মনে হয় যেন আলাপ ক’রছে দু’টি সাঙ্গাৎ । এদিকে জ্বর বাড়তে বাড়তে ফেলনার যায় যায় অবস্থা হয় দুপুর বেলা। চাঁচের বেড়া থাকলেও ওপারে সব টের পায় সবাই। সূৰ্য্যের মা ইতস্তত করে অনেকক্ষণ, ফিস ফিস ক’রে সূৰ্য্য। আর লক্ষ্মীকে জিজ্ঞেস করে কয়েকবার, যাব নাকি ?” তারপর বেলা পড়ে এলে সতীরাণীর বিনুনী কান্না শুনে হঠাৎ মনস্থির করে সাত বছর পরে সূৰ্য্যের মা বেড়ার ওপারে যায়, আস্তে আস্তে গিয়ে বসে ফেলনার শিয়রে চাদের মারা পাশে । সন্ধ্যার আগে ফেলনা মারা গেলে মড়া কান্না শুনে এপারের বাকী সকলেও হাজির হয়। ওপারে। সাত বছরে পাঁচবার মড়া কান্না উঠেছে জনাৰ্দনের অংশে, কিন্তু গোবৰ্দ্ধনের অংশ থেকে বেড়া পেরিয়ে কেউ কখনও আসেনি। সাত বছর পরে আজ বেড়ার দু’দিকের মেয়েরা বেড়ার একদিকে হ’য়ে একসঙ্গে। কঁদতে আরম্ভ করে। চাদ শোকের নেশায় পাগলের মত কাণ্ড আরম্ভ করলে so