পাতা:আত্মকথা - সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১২৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মানবের মধ্যে প্রধান পুরুষ হইয়া আছেন ও থাকিবেন। যুধিষ্ঠিরাদির এত যে গৌরক সেও সেই জন্য। মানবের হিতার্থই বিশ্বে বিধাতার দুঃখের সৃষ্টি । দুঃখ ভোগ কন্বিতে শেখ, দুঃখ অতিক্রম করিবার শক্তি যাহাতে জন্মে তাহা করি, মানুষ হইয়া যাইবে । আমার মধ্যম জেঠা মহাশয়ের জ্যেষ্ঠ পুত্র বৃন্দাবন চন্দ্ৰ বস্তু প্ৰথমে ট্রেজারিতে ৮০ টাকা বেতনের চাকরী করিয়াছিলেন । তদপেক্ষা বেশী বেতনের একটা চাকরী খালি হইলে সাহেবেরা তাহাকে তাহা না দিয়া আর একজনকে দিয়াছিলেন। বৃন্দাবন দাদা রাগ করিয়া চাকরী ছাড়িয়া দিয়াছিলেন। তা হাতে আমাদের সংসারের বড় কষ্ট হইয়াছিল। আমার পিতা তখন আমাদের সংসারের কৰ্ত্তা ছিলেন। তিনি বৃন্দাবন দাদাকে তিরস্কার করিতে লাগিলেন। বৃন্দাবন দাদা এক বন্ধুর কাছে কিছু টাকা কাজ করিয়া কষ্ট্ৰাক্টের কাজ আরম্ভ করিলেন। তাহাতে কিন্তু তাহার লোকসান। হইল। তখন তঁহার দুরবস্থার সীমা রহিল না । তিনি অজ্ঞাতবাস আরম্ভ করিলেন কোথায় ছিলেন। আমরাও জানিতে পারি নাই । বোধ হয়। সেই সময়ে প্ৰতিজ্ঞা করিয়াছিলেন যে, ধনাঢ্য না হইলে লোকালয়ে আর মুখ দেখাইবেন না। হইলও তাই। তিনি বড় বুদ্ধিমান ও ক্ষমতাশালী মানুষ ছিলেন। তাহার বন্ধু ছিলেন আমার আচাৰ্য্যদেব শক্তিউপাসক শক্তিশালী ভূদেব মুখোপাধ্যায়। অজ্ঞাতবাসের ২/১ বৎসৱ পরেই বৃন্দাবন দাদা কৃতী লোক বলিয়া কলিকাতায় প্ৰতিষ্ঠা লাভ করিয়াছিলেন। কষ্টে পড়িয়া তাহার মানসিক শক্তির অসাধারণ বিকাশ হইয়াছিল-সেইজন্য যে কাজে হাত দিতেন তাহাতেই কৃতকাৰ্য্য হইতেন । সেইজন্যই তা যখন আউধ ও রোহিলনন্দ রেলপথ প্ৰস্তুত হইতেছিল তখন ডাক্তার মেক্রে ( Dr. Alexander Macrae ) বৃন্দাবন দাদাকে অংশীদার করিয়া ঐ রেলপথ নিৰ্ম্মণার্থ দ্রব্য সরবরাহের জন্য Alexander Bose & co-đề sics ofst<iwito coì* *f33lfstois I qèso আমার শক্তিশালী আচাৰ্য্য এবং বৃন্দাবন দাদা হরিহরাত্মা হইয়া উঠিয়াছিলেন । দুঃখ-কষ্টে পড়িলে বিধাতাকে গালি দিও না, বৃন্দাবন দাদার মত দুঃখ-কষ্ট অতিক্রম করিবার শক্তি সঞ্চয় করিও, মানুষ বলিয়া গণ্য হইবে। যে মাঝি বার বার তুফানে পড়িয়া নৌকা বৃক্ষা করিতে পারে। সেই পাকা মাঝি হয়। যে মাঝি কখনও তুফানে পড়ে না। সে কঁচা মাঝি-তাহার নৌকায় উঠতে সাহস হয় না। সংসারের তুফানে ভীত না হইয়া শক্ত করিয়া মনের হাল ধরিয়া থাকিও, দেখিবে তুফান ঠেলিতে কত সুখ । কত আনন্দ ! পৃথিবীতে অসীম মুখত আছেই, আবার যে দুঃখ আছে তাহাতেও কি উচ্চ আনন্দ ! এমন পৃথিবী কি আর হয়! আর তুফান ঠেলিতে ঠেলিতে জীবনযাত্রা যখন শেষ হইয়া আইসে তখন উহা কেবল ছেলেখেলা হয় নাই ভাবিয়া কৃতাৰ্থ হইতে হয় । 优子