পাতা:আত্মকথা - সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২০৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হয়। বঙ্কিমবাবু বহরমপুরে যাইতেছেন বলিয়া সঙ্গীলবাবু পিতাকে পত্রে লেখেন, আমাদের বাসায় উঠবেন বলিয়া জানাইয়া রাখেন এবং কাছারির নিকট বঙ্কিমবাবুর জন্য একটি বাটী ভাড়া করিবার জন্য অনুরোধ করেন । আমি অবশ্য পাঁচটা বাষ্ঠী দেখিয়া শুনিয়া, একটি বাড়ী ঠিক করিয়া ঝাড়াইয়া ঝুড়াইয়। রাখিলাম ; জল তুলাইয়া রাখিলাম ; একটি ঠিক চাকরিও রাখিয়া দিলাম। পূর্বেই বলিয়াছি, বঙ্কিমবাবুর কপাল কুণ্ডলা পড়িয়া আমি কাব্যে গুণাপনায় মুগ্ধ হইয়াছিলাম, সুতরাং কেৰল আতিথ্যের খাতিরো নহে, প্ৰকৃত ভক্তিভারে, আনন্দ সহকারে, এই সকল কাৰ্যা করিয়াছিলাম। যথাকালে বঙ্কিমবাবু আসিলেন, আহারাদি করিলেন, শুনিলেন যে, আমি গৃহবাসী গঙ্গাচরণ বাবুর পুত্র, বি-এল পাস করিয়া বহরমপুরে ওকালতি করিতে অ্যাসিয়াছি । আহারের পর বিশ্ৰাম করিলেন ; বিশ্রামের পর বৈকালে আমায়া পিতাপুত্রে গাড়ী করিয়া তাহাকে তঁহার বাড়ী দেখাইতে লইয়া গেলাম। বাড়ী দেখিলেন, পছন্দ করিলেন, ঠিক চাকর তিন খানা কেদারাবাহির করিয়া দিল, আমরা তিন জনে ক্ষণেক বসিয়া রহিলাম, বাসায় সকলে ফিরিয়া আসিলাম, বঙ্কিমবাবু সে রাত্রি আমাদের বাসাতেই যাপন করিলেন । পিতার সহিত কথাবাৰ্ত্ত চলিল । BD MLDL LDDD SBB SBSS uBDBDB BYK DBSSK DD D DD বাসায় গেলেন, আমি গাড়ী কবিয়া দিলাম, গাড়িতে তুলিয়া দিলাম ; হায়রে হায় ! অংখনকার কথা মনে পড়িলে, এখনও বুক ফাটে। এ পৰ্য্যন্ত বঙ্কিমবাবু আমার সহিত একটি কথাও কহিলেন না ; অধীনের প্রতি কপালকুণ্ডলাকারের করুণ কটাক্ষ হইল। না। বাবা সব বুঝেন, সব জানেন, সব দেখিতেছিলেন, আমি ফিরিয়া উপরে গেলে, বলিলেন “বঙ্কিম গেল হে ?” আমি বলিলাম “হী”। “তোমার সহিত দু’দিনে একটিও কথা হয় নাই ।” অ্যামি বলিলাম “কথা কি, আমি যে একটা জীব, এই বাসায় থাকি, সে খবর হয়ত, তঁহাতে এখনও পৌছে নাই।” পিতা বলিলেন “তাই বটে।” বলিয়া উচ্চ হাত করিতে লাগিলেন। তাহার হাসির ফোয়ারায় আমার মনের ময়লা ধুইয়া গেল ; পিতৃগৌরবে আমি গৌরবান্বিত, আমিও হাসিতে লাগিলাম । কাছারীর ফেরত পিতা-পুত্র দুইজনে বঙ্কিমবাবুর সুবিধা-অসুবিধা কতদূত্র হইতেছে দেখিবার জন্য, বঙ্কিমবাবুর বাসায় তাহাকে দেখিতে গেলাম। বঙ্কিমবাবু *আসুন” বলিয়া পিতাকে সম্বৰ্দ্ধনা করিলেন । এবার মনে হইল, পিতাকে আসুনের সম্বোধনে, ব্রাকেটের মধ্যে আমিও যেন আছি। আমার নিযুক্ত সেই চাকরি, সেইরূপ তিনখানি কেদারা বাহির করিয়া দিল ; বঙ্কিমবাবুর আদেশমত পিতাকে তামাক দিল, আমরা তিন জনে বসিয়া রহিলাম। পিতার সহিত বঙ্কিমবাবুর কথোপকথন হইতে লাগিল । আমি জানাস্তিকে দুই এক কথার টোপ ফেলিতে লাগিলাম। পিতা-পুত্র-৫