পাতা:আত্মকথা - সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৯৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুত্রটির হাতে মুখে দইয়ের দাগ, আর লুকাইবার যো নাই। পো-র কানে চীৎকার করিয়া বলিলেন, “আর উ কি ? ঐ ‘বাবা’ । বড় যে আদর দেও!” শুনিয়া “প্ৰপিতামহ মহাশয় হাসিয়া উঠিলেন, “হাঃ হাঃ, বেশ করেছে, তবে ও-ই সব খাক,” বলিয়া আহার ত্যাগ করিলেন। কিন্তু এ বন্দোবস্ত মা’ব সহ হইল না। তিনি আমার গলা টিপিয়া থাবড়া দিয়া তুলিয়া লইয়া গেলেন , বলিতে লাগিলেন, “আচ্ছা! তো বেরাল তাড়াতে বসিয়েছি, নিজেই বেরাল হয়েছে।” আমি বাল্যকালে প্ৰপিতামহদেবের অধর্মের প্রতি যে বিরাগ দেখিয়াছিলাম, তাহা তুলিবার নহে। পরিবার মধ্যে আমার পিতা বা মাতা কাহারও কাৰ্য ধর্ম বা নীতিসঙ্গত হয় নাই, এরূপ মনে করিলে তিনি নিজের গালে মুখে চড়াইতেন বা মাথা খুঁড়িতেন। ক্ৰোধ কোন প্রকারেই সম্বরণ করিতে পারিতেন না। আমার কোনো দুষ্টামি তাহার কর্ণগোচর হইলে মাকে ডাকিয়া আমাকে শাসন করিতে আদেশ করিতেন। পাছে আমি পাড়ার কুসঙ্গে মিশিয়া দুষ্টামি শিখি, বোধ হয় এই ভয় করিতেন ; কারণ, দেখিতে পাইতাম যে, কুকুরটা বাছুরটা তাহার ঘরের রকের সম্মুখ দিয়া গেলে, ঝাপসা-ঝাপসা দেখিয়া, “ওই বাবা বাইরে গোল’ বলিয়া মাকে ডাকাডাকি ও মহামারি উপস্থিত করিতেন । এইজনু আমাকে পা টিপিয়া টিপিয়া বা পিছন দিয়া অনেক সময়ে পলাইতে হইত । sBDDBB YSKBD L DBYLYKSSgBBBDSDBDDD BBDBYB DDDDTDY *ও সংস্কৃতানুরাগী মানুষ ছিলেন । আমার স্মরণ অাছে, গ্রামের পণ্ডিতদিগের মধ্যে অনেকে মধ্যে মধ্যে কঠিন কঠিন প্রশ্ন বিষয়ে শাস্ত্রীয় ব্যবস্থা জানিবার জন্য তঁাহার নিকট আসিতেন । তখন চীৎকার করিয়া প্রশ্নগুলি তাহাকে বোঝানো ও ব্যবস্থা লওয়া এক মহা ব্যাপার পড়িয়া স্নাইত । বয়সে অতি প্ৰাচীন হইলেও তিনি সেরূপ স্মৃতিশক্তি হারান নাই। তিনি শাস্ত্রীয় বচন উদ্ধৃত করিয়া প্রশ্নের মীমাংসা করিয়া एि डब् । সেই বুদ্ধ বয়সেও তঁহার জানালোচনাতে আনন্দ দেখিতাম ! তাতার সংস্কৃতজ্ঞান বিষয়ে দুটি উল্লেখযোগ্য বিষয় আছে। প্রথমটি এই ! অনুমান ১৮৫১ কি ১৮৫২ সালে আমাদের গ্রামের স্কুলের মধ্যে একটি সংস্কৃত শিক্ষার শ্রেণী খোলা হয় । আমাদের জাতিবর্গের বাড়ির অনেক ছেলে তাহাতে ভর্তি হয়, এবং আমার মাতার জ্যাঠতুতো ভাই চাঙ্গড়িপোতা গ্রাম নিবাসী কৈলাসচন্দ্র চক্রবর্তী মহাশয় সেই সংস্কৃত শিক্ষা শ্রেণীর শিক্ষক নিযুক্ত হন। তিনি কৰ্ম লইয়া আমাদের গ্রামে গিয়া আমাদের বাড়িতেই বাস করিতে থাকেন, এবং সংস্কৃত কাব্যাদির বিচার বিষয়ে আমার প্ৰপিতামহের একজন সহায় ও সঙ্গী হইয়া পড়েন। প্ৰাতে গ্রামের কোনো কোনো