পাতা:আত্মকথা - সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৫৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অনুষ্ঠানকে “খিচুড়ী বিবাহ’ বলিয়াছি। উপাসনার পর এক কাগজে বীরকন্যা স্বাক্ষর করিলেন। আমার যত দূর স্মরণ হয়, সাক্ষীদের মধ্যে শ্ৰদ্ধেয় বন্ধু আনন্দমোহন বক্ষ একজন ছিলেন। তখন কিন্তু তঁহার সহিত আমার আলাপ পরিচয় হয় নাই । রিফর্মার বন্ধুর কীর্তি। বিবাহের পর উপেনের সহিত ও তঁহার নবপরিণীত 'ত্রীর সহিত আমার সম্বন্ধ আরও গাঢ় হইল। আমি সর্বদাই তাহাদিগের সংবাদ লেইতাম, এবং কিছু কাজ পড়িলে করিয়া দিতাম। এই সময় হইতে দেখিতে লাগিলাম, উপেন ঋণ শোধের প্রতি দৃষ্টি না। রাখিয়া ধার করেন, বাড়ি ভাড়া করিয়া ভাড়া না। দিয়া রাতারাতি পলাইয়া অন্য বাড়িতে যান, ইত্যাদি। দুই-একবার নিজে কার্জ করিয়া টাকা দিয়া এরূপ অবস্থা হইতে র্তাহাকে সপরিবারে উদ্ধার করিতে হইল। তথাপি তঁহার প্রতি বিশ্বাস ভাঙিতে অনেক দিন গিয়াছিল। একবার রাত্রি দুইটার সময় উপেন সপরিবারে পলাইয়া কলিকাতা হইতে অমৃতবাজারের শিশিরকুমার ঘোষের বাড়িতে যান। তখন শিশিরবাবুর অগ্রসর সংস্কারক ও ব্রাহ্ম ছিলেন। সেই রাত্রে আমি যোগেন ও উমেশ মুখুয্যে সশস্ত্ৰ হইয়া আঁহাদের স্ত্রীপুরুষকে আগুলিয়া নারিকেলডাঙ্গার খালে নৌকায় তুলিয়া দিয়া আসিয়াছিলাম। এখন মনে হইলে शग्नि प्राञ् । ইহার পর ডাক্তার লোকনাথ মৈত্র কিছুদিনের জন্য নিজ ব্যয়ে উপেন্দ্ৰ ও তাহার স্ত্রীকে কাশীতে নিজ ভবনে লইয়া যান, এবং তঁহাদের ভরণপোষণ নির্বাহ করিতে থাকেন । এইরূপে এক বৎসরের অধিক কাল গত হয়। সেখানে উপেন গোপনে দেনা করিয়া লোকনাথবাবুকে ঋণগ্রস্ত করিয়া পীড়িত অবস্থায় কলিকাতায় আসেন। আসিয়া কিছুদিন আমার বাড়িতে থাকেন । ইহা যদিও পরবর্তী কালের ঘটনা, তথাপি এখানেই তাহার বিবরণ দিতেছি । আমি তখন ব্ৰহ্মানন্দ কেশবচন্দ্র সেনের নিকট ব্ৰাহ্মধর্মে দীক্ষিত হইয়া, পিতা কর্তৃক গৃহ হইতে তড়িত হইয়া, কলিকাতায় কলেজ স্কোয়ারের উত্তরে একটি গলিতে একজন ব্ৰাহ্মবন্ধুর সহিত এক গৃহে বাস। করিতেছিলাম। আমার কলেজের স্কলারশিপ মাত্র ভরসা। তাহাতে একটি ঘর ভাড়া কবিয়া কোনো রূপে চালাইতেছিলাম । ইহার মধ্যে উপেন্দ্রনাথ আমাকে সংবাদ না দিয়া, গুরুতর পীড়া লইয়া, স্ত্রী ও একটি শিশুপুত্র সহ কাশী হইতে আসিয়া অামার বাসার দ্বারে উপস্থিত। “আমি সংবাদ পাইয়া উপেনকে সপরিবারে গাড়ি হইতে নামাইয়া নিজের ঘরে আনিলাম। একজন বন্ধু আমার পাশের ঘরে ছিলেন। তিনি এই বিপদের অবস্থা দেখিয়া ভঁাহার ঘর ছাড়িা দিয়া অন্যত্র গেলেন। আমি উপোনের চিকিৎসার জন্য অন্নদাচরণ খাস্তুগির মহাশয়কে ডাকিলাম । তিনি আমাকে বড় ভালবাসিতেন, তিনি বিনা পয়সায় উপেনের চিকিৎসার তার লইলেন। 4t