পাতা:আত্মচরিত (শিবনাথ শাস্ত্রী).pdf/১৬০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Sy শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত ম্যাজিষ্ট্রেট ঈশ্বরচন্দ্ৰ ঘোষালের নিকট হইতে কলেজের অধ্যাক্ষের নামে এক পত্ৰ আসিয়া উপস্থিত, “শিবনাথ ভট্টাচাৰ্য নামে তোমাদের বি-এ ক্লাশে এক ছাত্র আছে, তাহাকে আমি কিছুক্ষণের জন্য চাই ।” DDDB BLBDD S sBDDD DBDDDB DDB S DBDB DBBD জিজ্ঞাসা করিলেন “ঈশ্বর ঘোষাল তোমাকে ডাকিয়াছেন কেন?” আমি বলিলাম “কিছুই জানি না, তাহার সহিত আলাপ পরিচয় নাই।” তখন আমাকে পাঠাইবার পূর্বে ঈশ্বর ঘোষাল সম্বন্ধে অনেক কথা বলিয়া দিলেন। বলিলেন, “সাবধান, তিনি তোমাকে শ্ৰীষ্টীয় ধৰ্ম্ম ভজাইবেন।” সৰ্ব্বাধিকারী মহাশয় যাহা বলিয়াছিলেন তাহাই গিয়া শুনিলাম। ঘোষাল মুহাশয় পূৰ্বদিনে শুrামবাজারের উপাসনাতে উপস্থিত ছিলেন, এবং আমার উপদেশে শ্ৰীত হইয়াছেন। তিনি আমাকে খ্ৰীষ্টীয় ধৰ্ম্মের মহৎভাব দেখাইবার জন্য আদিম প্ৰফেন্টদিগের ভবিষ্যদ্বাণীর সহিত পরবর্তী ঘটনা তুলনা করিয়া দেখাইতে লাগিলেন ; এবং আমাকে একখানি বাইবেল উপহার দিলেন। আমার প্রতি পুত্ৰাধিক মেঙ্গ প্ৰদৰ্শন করিয়া বিদায় করিলেন । আমি ভাবিতে ভাবিতে আসিলাম “ইনি কেন খ্ৰীষ্টীয় ধৰ্ম্মে দীক্ষিত হন না ?” । শু্যামবাজারের উপদেশের ধাক্কা এখানেও থামিল না । কয়েকদিন পরেক্ট সিন্দুরিয়াপটী পারিবারিক-সমাজ হইতে ক্ষেত্ৰনাথ শেঠ নামে একজন সভ্য আসিয়া উপস্থিত। আসিয়া আমাকে বলিলেন যে, উক্ত পারিবারিকসমাজের সকলের ইচ্ছা যে, আমি তাহদের সমাজের আচাৰ্য্যের ভার গ্ৰহণ করি। অগ্ৰে অযোধ্যানাথ পাকড়াশী মহাশয় সেই সমাজের আচাৰ্যের কাৰ্য্য করিতেন, কিন্তু কাৰ্য্যবাহুল্য নিবন্ধন তিনি সেই ভার পরিত্যাগ করিয়াছেন। এখন আমাকে গ্ৰহণ করিতে হইবে। পাকড়াশী মহাশয়ের প্ৰতি আমার প্রগাঢ় শ্রদ্ধা ছিল। আমি তাহার উপদেশে বিশেষ