পাতা:আত্মচরিত (শিবনাথ শাস্ত্রী).pdf/২৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


R R Y শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত সম্বল হাতের কাছে পাইলেন, তাহাই লইয়া ছুটলেন। কি উদারতা! এই উদারতা তাহার প্রকৃতির এক মহা সদগুণ। D BDB DBDBDBD BBDD BBS DBDDLD D uDB DBB মাকে আমার পরিচর্য্যার জন্য সেই বাড়ীতে রাখিয়া গেলেন। মাতাঠাকুরাণী বিরাজমোহিনীকে ও আমাকে লইয়া সেই বাড়ীতে রহিলেন। মাতাঠাকুরাণীর জপ তপ ব্ৰত নিয়ম উপবাসাদির মাত্ৰা অসন্তবরূপ বাড়িয়া গেল। প্ৰায় প্রতিদিন দেড়মাইল পথ হাটয়া গঙ্গাস্নান করিতে যাইতেন ; এবং ইষ্টদেবতার চরণে শত শত প্ৰণাম করিয়া এই অধম পুত্রের জীবনভিক্ষা করিতেন। তৎপরে গৃহে ফিরিয়া আমারই রোগশস্যার পার্থে বসিয়া মাটী দিয়া শিব গড়িয়া পূজাতে প্ৰবৃত্ত হইতেন। আমি শুইয়া শুইয়৷ তাহার পূজার নিষ্ঠা দেখিতাম। rBD DBD DBDD DBDB D YB DLLD DD LLDBB জ্ঞাতিকুটুম্ববর্গের মধ্যে কেহ কেহ দলাদলি আরম্ভ করিলেন। বাবা "তখন বজের ন্যায় কঠোর হইয়া দাড়াইলেন। একঘরে করে করুক, আমার কৰ্ত্তব্য কাজ আমি করেছি, বলিয়া সে দলাদলির প্রতি ভ্ৰক্ষেপও করিলেন না। এই দলাদলিতে কিছুদিন গেল। tBDY D DS BBLS SDLS DBD sOBDD DDBK ন্যায়ালঙ্কার মহাশয় অতি সাধুপুরুষ ছিলেন। তিনি মায়ের মন্ত্ৰদাতা গুরু ছিলেন। তার প্রতি আমাদের পরিবারস্থ সকলের ও জ্ঞাতিকুটুম্বের KKBD DiDDB SDDD BSDD BBS DBDBu BDB S sBuD যে কিছু চিহ্ন ঘরে ছিল সে-সমুদ্ৰায়ের প্রতি মার এত ভক্তি যে, বাড়ীর কাহারও গুরুতর পীড়া হইলে, সেগুলি তাহার রোগশয্যাতে স্থাপন করা হইত, রোগমুক্তি না হইলে অন্তরিত করা হইত না। সেই নিয়মানুসারে জননী দেবী ন্যায়ালঙ্কার মহাশয়ের লাঠি মালা প্ৰভৃতি