পাতা:আত্মচরিত (শিবনাথ শাস্ত্রী).pdf/৩১৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


var 9f7 মান্দ্ৰাজ হইতে ফিরিবার পর, বোধ হয়। ইহার কিছু পরে, একটা পটনা ঘটে যাহা উল্লেখযোগ্য। একদিন প্ৰাতে ৯৩ নম্বর কলেজ ষ্টীটে পসিয়া ব্ৰাহ্ম পাবলিক ও পিনিয়নের বা তত্ত্বকৌমুদীর কপি লিখিতেছি। এমন সময় যদুমণি ঘোষ নামে একজন ব্ৰাহ্মবন্ধু আসিয়া উপস্থিত। ইনি উড়িস্যাজাত বাঙ্গালী ছিলেন এবং ইহাকে আমরা কেশব বাবুর বিশেষ অনুগত প্রচারক দলে প্ৰবেশাখী শিষ্য বলিয়া জানিতাম। আমি উঠিয়া অভ্যর্থনা করিতে না করিতে যদুমণি জিজ্ঞাসা করিলেন, “মশাই, বিনা ষ্ট্যাম্পে হাগুনোটে নালিশ চলে কি না ?” আমি-বনুন বসুন, সে কথা পরে হবে। সদুমণি-পরে বসছি, বলুন না নালিশ চলে কি না ? আমি-যতদূর জানি, চলে না। সদ্যমণি-মাঃ তবে তা আমার অনেক হাজার টাকা গেল । আমি-"সে কি, কার নামে নালিশ করবেন ? যদুনন্ণি-কেশবচন্দ্ৰ সেনের নামে । . আনি—সে কি ! কেশব বাবুর নামে নালিশ ! তৎপরে যাদু বাবু বলিলেন যে কেশব বাবু কমলাকুটীর কিনিবার সময় DD DDD DBBBBYS DBDD DD DB DBB BBD LDBB লিখিয়া দিয়াছেন, তাহাতে ষ্ট্যাম্প দেন নাই। পরে কথা হইয়াছে যে, কমলাকুটীরের উত্তরে মঙ্গলবাড়ী পাড়ায় যদুমণির জন্য একটি বাড়ী নিৰ্ম্মিত হুইবে । সেই জমির দাম ও গৃহনিৰ্ম্মাণের ব্যয় বাদে যে টাকা প্ৰাপ্য