পাতা:আত্মচরিত (শিবনাথ শাস্ত্রী).pdf/৩৩৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Oe শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত বলিলাম, “ঈশ্বর করুন। এযাত্র আপনি সারিয়া উঠুন।” তারপর তিনি যতদিন বঁাচিয়া ছিলেন, আমি মধ্যে মধ্যে গিয়া দেখিয়া আসিতাম। তাহার পত্নীর মুখ যখন দেখিতাম, তখন চক্ষের জল রাখিতে পারিতাম না। কি সুখেই ভারতাশ্রমে ছিলাম, আর কি দুঃখই পরে ঘটিল, তাই মনে হইত। আমরা পরোক্ষভাবে তাহার মৃত্যুর অন্যতম কারণ এই মনে হইয়া সেই দুঃখ ঘনীভূত হইত। পরে শুনিলাম যে চিকিৎসকগণ র্তাহাকে মাংসের যুষ খাওয়াইতেছেন, डाशयड डैशब्र भूब আলবুমেন (albumen) হইয়া, যকৃতে SLTST! (gravel ) দেখা দিয়াছে। শুনিয়া চুটিয়া দেখিতে গেলাম। গিয়াই কমলাকুটীরে প্রবেশ করিয়াই তাহার। আৰ্ত্তনাদ শুনিলাম। রোগীর এরূপ আৰ্ত্তনাদ অল্পই শুনিয়াছি। নিকটে গিয়া দেখি তিনি যন্ত্রণাতে ছটফট করিতেছেন। শয্যাতে একপার্থে স্থির থাকিতে পারিতেছেন না। সে যন্ত্রণা, সে আৰ্ত্তনাদ, সে কাতরানি দেখিয়া চক্ষের জল রাখিতে পারিলাম না। ৮ই জানুয়ারি প্রাতে তাহার আত্মা নশ্বরধাম ত্যাগ করিয়া স্বৰ্গধামে প্ৰস্থান করিল। সে প্ৰাতে আমি ভঁাহার শয্যাপার্থে উপস্থিত ছিলাম। বৈকালে তঁহার মৃতদেহ লইয়া পাদুকাহীন পদে সকলের সঙ্গে আমরা অনেকে শ্মশানঘাটে গেলাম এবং অশ্রুজিলে ভাসিয়া এ জীবনের অন্যতম গুরুকে চিন্তানলে অৰ্পণ করিয়া আসিলাম । এতদিন ঝগড়া করিতেছিলাম, কিন্তু ব্ৰহ্মানন্দ যখন চলিয়া গেলেন, BB DDD DDD DDDBB DuDD DBDD D BDDB DDBB DBBB S কেশবচন্দ্রের সহিত ব্ৰাহ্মসমাজ লোকচক্ষে উঠিয়াছিল, তঁহাতে নিরাশ হইয়া তাহার অন্তৰ্ধানের সঙ্গে সঙ্গে সেই যে পশ্চাতে পড়িল আর সম্মুখে আসিতেছে না। কোথায় তার জীবনের মহাশক্তি, আর কোথায় আমাদের মত দুৰ্বল অসার মানুষের চেষ্ট !