পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১০৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


করিলে তাহার ভাব হাদয়ংগম করিতে পারা যাইবে। একটি সঙ্গীতে ঈশবরকে সম্বোধন করিয়া বলা হইত, তোমার রাগে রাঙা নয়ন তলে বহে দেখি প্রেমধার। আর একটি সঙ্গীত যাহা তাঁহাদের মখে সবদ শনিতাম, তাহা এই ; D DBD BBDDBD LDD D DD DBBD তবে কেন রোগে শোকে পাপে তাপে ব্যথা কান্দ ? মাঝখানে জননী বসে, সন্তানগণ তার চারি পাশে, ভাসাইয়াছেন প্ৰেমময়ী প্রেমনীরে। একবার বাহা তুলে মা মা বলে নিত্য কর সন্তানবন্দ। এই গান করিয়া সকলে নিত্য করিতেন। একদিকে যেমন অন্যতাপ ও ক্ৰন্দন শনিতাম, অপর দিকে ইহাদের কাছে গিয়া আনন্দ ও নিত্য দেখিতাম। তখন ইহা বেশ লাগিতা। শিশিরবাবদের ভাইয়ে ভাইয়ে ভাব দেখিয়া মন মগধ হইয়া যাইত। ইহার পরেই তাঁহারা কলিকাতা হিদেরাম বাঁড়িয্যের গলিতে আসিয়া বাসা করিয়া থাকেন। সে সময়ে তাঁহাদিগকে সবাদা দেখিতাম। শিশিরবাবর অমায়িকতা দেখিয়া আমার মন মগধ হইয়া যাইত। একদিনের কথা সমরণ আছে, তিনি সেদিন আমাকে আহার করিতে নিমন্ত্ৰণ করিয়াছিলেন। আহারের সময় উপস্থিত হইলে বলিলেন, “কি পরের মতো বাহিরে বসে খাবে! চল, রান্নাঘরে গিয়ে মাকে বলি, হাড়ি হতে গরম-গরম ভাত তরকারি মা’র হাতে না। খেলে সখি হয় না।” এই বলিয়া দজনে গিয়া রান্নাঘরে আহারে বসিলাম। যত দর সমরণ হয়, তাঁহার জননী গরম-গরম ভাত তরকারি দিতে লাগিলেন ও আমরা उषाष्ट्राद्भ दर्गद्व८ऊ ढगळाभ । ইহার পর হইতে শিশিরবাবরা অলেপ অলেপ ব্ৰাহমসমাজ হইতে সরিয়া পড়িলেন। খ্যাতির বিড়ভাবনা। কিন্তু একটি কারণে এই সময় কিছুদিন ধরিয়া আমার আধ্যাত্মিক অবস্থা বড়ই অসন্তোষকরা হইয়া গিয়াছিল। সে কারণটি এই। যতদিন আমি ব্ৰাহমদের পশ্চাতে ছিলাম ও আপনাকে অনেকাংশে হীন বলিয়া মনে করিতাম, ততদিন আমার অন্তরে বিনয় ও ব্যাকুলতা ছিল। আমি আপনাকে সাধারণের মধ্যে ব্রাহমরপে পরিচিত হইবার অযোগ্য বলিয়া মনে করিতাম। কিন্তু দীক্ষার দিন হইতে সে অবস্থা চলিয়া গেল। আমি যেন হঠাৎ পশ্চাৎ হইতে সম্পমখে আসিয়া পড়িলাম; এবং হঠাৎ BuDD BBD DDD DBBD DBBDBB BBD DBDBBDBB DBDDD DBB DDDD BB DBLB সবত্রই সমাদর পাইতে লাগিলাম। সে সমাদরের উপযন্ত আমি ছিলাম না। বোধ হয় এতটা সমাদর পাইবার দাইটি কারণ ছিল। প্রথম, ১৮৬৮ সালের শেষে আমার *নিবাসিতের বিলাপ’ গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয়, প্রকাশিত হইবামাত্র উহা লোকের দন্টি আকর্ষণ করে ও সবােত্র প্রশংসিত হয়। তদনসারে আমি একজন উদীয়মান কবিরপে পরিচিত হইয়াছিলাম। দ্বিতীয়ত, আমার দীক্ষার সময় হইতে আমার “মাতুল উন্নতিশীল ব্রাহীম দলকে কৈশব দল’ নাম দিয়া সোমপ্রকাশে তাহদের প্রতি গোলাগলি বর্ষণ আরম্ভ করেন, তাহাতেও আমার নামটা সাধারণের মখে উঠে। যে 3a OsR