পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৩৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তোমরা এখন কোথা থাক ?” হঠাৎ ফিরিয়া দেখি, একটি গৌরবর্ণা যাবতী একটি শিশী কন্যায় হাত ধরিয়া আসিতেছে। মািখ দেখিয়া চিনিতে পারিলাম। ভবানীপার। বাসকালে আমি এক নিজন পল্লীতে বাস করিতাম। ঐ পতিতা নারী তাহার সন্নিকটেই থাকিত, ও আমাদের মেয়েদের সঙ্গে এক পকুরে স্নানাদি কারিত। সে যে আমাকে DD DDBBB D BDBD BDD DBBS BBDB DDDBBD D DBBB BBBBS BDD DDD তাহার মাখের দিকে চাহিবামাত্র সে হাসিয়া বলিল, “তোমার, সঙ্গে আমার একটি বিশেষ কাজ আছে। তোমার বাসা কোথায় বললে আমি গিয়ে দেখা করতে পারি, নতুবা আমার বাসা অমক নম্বর শিব ঠাকুরের গলি, সেখানে তোমাকে একবার । ইহার পর বিদ্যারত্ন ভায়া ও আমি দইজনে বলাবলি করিতে লাগিলাম, “আমাকে যখন জানে, তখন আমি কি তন্ত্রের লোক তাও জানে। আমার সঙ্গে ওর কি কাজ ?” DBDD DDBBB BDDBBB BDuDBBD DS DDBDDB BBB BD DBBD SS DDD DBDBDBB বন্ধ কেদারনাথ রায়কে এই বিবরণ। বলিলাম। তিনি এক সময়ে এই শ্রেণীর সত্ৰীলোকদের মধ্যে কাজ করিয়াছিলেন। তিনি বলিলেন, “ও যখন ব্যাকুল হয়ে তোমাকে ডেকেছে, তখন নিশ্চয় কোনো বিষয়ে তোমার সাহায্য চায়। চল, একবার শিব ঠাকুরের গলিতে ওর বাড়িতে যাই।” এই নির্ধারণ অনসারে পরবতী রবিবার প্রাতে আমরা দজনে শিব ঠাকুরের গলিতে তাহার বাড়িতে গিয়া উপস্থিত হইলাম। দেখিলাম, সেই বাড়িটি এইরপে সন্ত্রীলোকে পরিপািণ । তখন বেলা ৯টা, তথাপি তাহদের অধিকাংশ ঘরে ঘরে পড়িয়া ঘামাইতেছে। অনেকে উঠিয়াছে, প্ৰাতঃক্ৰিয়া সম্পন্ন করিতেছে। এই মেয়েটির নাম থাকমণি। থাকমণি। আমাদিগকে দেখিয়া আশচযান্বিত হইয়া গেল। সে বোধ হয়। সাবপেনিও ভাবে নাই যে, তাহার নিমন্ত্রণে আমি ঐরােপ স্থানে যাইব । তাহার ভাবে এক আশ্চর্য পরিবতন দেখিলাম। সে রাস্তাতে আমার সহিত কথা কহিবার সময়, হাসিয়া ঢলিয়া “তুমি’ ‘তুমি’ করিয়া কথা কহিয়াছিল, কিন্তু সেদিন আর এক মাতি ধরিল। ‘আপনি” ও “আপনারা’ বলিয়া কথা আরম্ভ করিল। এবং অতি গম্ভীর ও অন্যতপত ভাবে আপনার জীবনের বিবরণ ব্যক্ত করিতে প্রবত্ত হইল। সে বিবরণ সংক্ষেপে এই। সে কলিকাতার সন্নিকটবতী কোনো স্থানের এক ভদ্র ব্রাহমাণ-পরিবারের কন্যা। তাহার মাতা ও ভ্ৰাতা তখনো জীবিত আছেন এবং সে বিপদে পড়িয়া প্রার্থনা করিলে অর্থ সাহায্য করিয়া থাকেন। বাল্যকালে একজন কুলীন ব্রাহণের সহিত তাহার বিবাহ হয়। তাহার অপর অনেকগালি সন্ত্রী ছিল, সে কখনো পতিগহে যায় নাই, কালেভদ্রে কখনো পতিকে দেখিয়াছে এই মাত্র। এই প্রকার অবস্থায় সে বয়ঃপ্রাপ্ত হইলে, পাড়ার একজন পরিষ তাহার পশ্চাতে লাগিল, এবং তাহাকে ফসলাইয়া কুলের বাহির করিয়া আনিল। এই অবস্থাতে সে তৎকালীন চৌদ্দ আইনের সময় সে আমাকে দেখিয়াছে ও আমার বিষয় অনেক কথা শনিয়াছে। সেইখানে । থাকিতে থাকিতে সে লক্ষীমণিকে দেখিয়াছে, এবং ব্রাহেরা কিরাপে তাহাকে উদ্ধার করিয়া আমার গহে রাখিয়াছে, তাহাও শনিয়াছে। তাই তাহার শিশী কন্যাটিকে আমার হসোত দিবার জন্য আমাকে ডাকিয়াছে। DD DBB DDBDBSuBBBB DD D L DD BBS DDDB BB DDBS তবে কেন তুমি এমন পথে পা দিলে ?” . S9&