পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৯৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাদে যে টাকা প্রাপ্য থাকিবে তাহা যদামণিকে প্রদত্ত হইবে। এই প্ৰস্তাবে যদ্যমণি স্বীকৃত হইয়াছিলেন, কিন্তু পরে তাঁহার চিত্ত বিচলিত হইয়াছে। BDBDD DDBDSBB DBDBeB BBBBDDD BBBB DBB DBDD DDD S DD হ্যান্ডনেট দিলেন, তবে স্ট্যাম্প দিয়ে দেওয়াই ভালো ছিল। কিন্তু আপনি এজন্য কেশববাবর প্রতি সন্দেহ করলেন কেন ? হ্যান্ডনোটেরই বা কি প্রয়োজন ? তাঁর BB BDD DBBD D DD DDDD DDD BB BBD DBBBD DD DDBu BBB না ? আর আপনি তাঁকে না বলেই বা ছটে বাহির হলেন কেন ?” BDBBDS DBBBD BBDD DLB BB DBDB S DBDDB DuDBuBDuS DDD BDBD দন্টিপাত করিয়াই মনে হইল, উন্মাদের লক্ষণ। তৎপরে যে ভয়ানক কথা বলিলেন, LBDD BDDD DDB BBB BBB BDDBD D DD DDBSEDB DBD DBDB ঝি আমার দািধ জৰাল দিতেছিল, কেশববাবার গহিণী ঝিকে বলিলেন, “ঝি তুই কাজে যা, আমি দধি জৰাল দিচ্ছি।” বলিয়া দধি জবাল দিতে বসিলেন। বলন, আমার দধি জৰাল দিবার জন্য কেশববাবার সন্ত্রীর এত গরজ কেন ?” আমি। এ তো খব ভালো কথা; এজন্য তো তাঁর প্রতি আপনার কৃতজ্ঞ হওয়াই উচিত। আপনি তাঁদের বাড়িতে থাকেন, তাঁরা সন্তানের ন্যায় দেখেন; ঝির অন্য কাজ আছে, তাকে সরিয়ে ঠাকরণ আপনার দধে জবাল দিতে বসলেন, এ তো মায়ের কাজ করলেন। এর ভিতরে আবার কি আছে ? তাঁর ভালোবাসার জন্য তাঁকে ধন্যবাদ করা উচিত। যদ্যমণি। না, আপনি বঝলেন না! আমাকে বিষ খাওয়াবার চেন্টা, তা হলে আর টাকাগলো দিতে হবে না। আমি (দাই কানো হাত দিয়া)। ছি, ছি, এমন কথা শনলেও পাপ হয়। আপনি ঐ সাধবী সতী সরলহন্দয়া নারীকে আজও চেনেন নাই। যদ্যমণি। আচ্ছা, আমি ভুবনমোহন দাস এটনির নিকট চললাম। আইনানসারে কি করা যায় আমাকে দেখতে হবে। আমি উঠিয়া হাতে ধরিলাম, “বসন বসন, যা করবার আমরা করে দেব, ব্যস্ত হবেন না। স্নান করুন, আহার করন, শান্ত হোন।” তিনি আমার অনরোধ-উপরোধের প্রতি কৰ্ণপাত না করিয়া আমার হাত ছাড়াইয়া ভবানীপর যাত্রা করিলেন। আমার লেখা পড়িয়া রহিল; আমি তখনই ভুবনমোহন দাসকে লোকের হস্তে এক পত্র পাঠাইলাম, যেন এই উন্মাদগ্ৰস্ত ব্যক্তির কথায় তিনি কৰ্ণপাত না করেন। ভুবনবাবকে পত্র লিখিয়াই কমল কুটীরে কেশববাবার নিকট ছটিলাম। তাঁহাকে গিয়া সমাদয় বিবরণ বলিলাম। কেশববাব। কি আশচয! ওর মনে মনে এত সন্দেহ হচ্ছে, তার কিছই তো আমাকে জানতে দেয়নি। আমি। এই তো আমারই আশচযা মনে হচ্চে। আপনি হ্যান্ডনোটি যদি দিলেন, তাতে সন্ট্যাম্পপ দেওয়া উচিত ছিল। ঐটে তার সন্দেহের কারণ হয়েছে। কেশববাব। আরে, ঐ হ্যান্ডনোট কি সে নেয় ? কোনো মতে নিতে চায় না; অবশেষে কতটা টাকা নেওয়া গেল তার -একটা লিখিত নিদশন। তার কাছে রাখবার জন্য আমি জোর করে এটা লিখে দিলাম। তিনি বলিলেন যে এক সপ্তাহের মধ্যে তাহার টাকা ফেলিয়া দিবেন, এবং পরে SSS