পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বোন ভেবে আমার মাখের দিকে চাও না ? আমিই তোমাকে বল দেব। আমি ও আমার স্বামী দজনেই পরামর্শ করেছি, তোমাকে কখনো যেতে দেওয়া হবে না। তুমি আমাদের বন্ধ, এমন বন্ধ সহজে পাওয়া যায় না।” তাহার পর আমি সেই গাহেই রহিলাম। তদবধি আমি তাহদের বন্ধই আছি। নিম্পন্ন শ্রেণীর মধ্যবিত্ত মেয়েদের সর্বভাব চরিত্র যখন এই, তখন সহজেই অনমান করা যাইতে পারে, উচ্চ শ্রেণীর মধ্যবিত্ত নারীদের সর্বভাব চরিত্র কিরােপ। BBBDL DDDuuDBuDuDLLD DBSB S BBB BB DDDDD DBDDBD LBBuu DBuDuBB স্বাধীনভাবে সকল পথানে সকল আলোচনাতে সকল কাজে যোগ দেন, তাহাতে যেন কাহারও মনে না হয় যে তাঁহাদের মধ্যে সামাজিক শাসন নাই। এমন কঠিন সামাজিক শাসন অলপই দেখা যায়। আমি যাঁহাদের বাড়িতে থাকি,তাম, সে বাড়িতে যদি কোনো দিন বাহিরের দরজার চাবি সঙ্গে লইয়া যাইতে ভুলিতাম, এবং ফিরিতে অনেক রান্ত্ৰি হইত, তাহা হইলে দেখিতাম, দবারে আসিয়া আঘাত করিলেই সিড়িীতে উপর হইতে নামিবার খটখট শব্দ শোনা গেল। একটি মেয়ে আসিয়া দবারোয় চাবি খলিয়া দিলেন, কিন্তু আমি খট করিয়া দাবার খলিতে না খলিতেই তিনি অন্তধ্যান। আমি দেখিতে পাইলাম। ছয়-সাত মাস তাঁহাদের বাড়িতে ছিলাম, মেয়েরা যে কোন ঘরে ঘমাইত তাহা জানিতাম না। সে দেশে মেয়েদের শয়ন ঘরে পরিষের প্রবেশের ন্যায়। নিন্দনীয় কাজ আর কিছই নাই। মেয়ে-পর্যুষে বৈঠকঘরে বসা, মেশা, রাস্তাঘাটে একত্রে বেড়ানো নিষিদ্ধ নয়। কিন্তু আদব কায়দার এত বাঁধাবধি যে, তাহার একটি লঙ্ঘন করিলে বন্ধতার বিচ্ছেদ ঘটে। মনে কর, একটি মেয়ের সঙ্গে দিইদিন হইল আলাপ পরিচয় হইয়াছে; এরপ অবস্থাতে হঠাৎ যদি পত্রে একটি ভালোবাসার ভাষা ব্যবহার করিলাম, অমনি তাহদের বাড়িতে কথা উঠিল, “এ তো লক্ষণ ভালো নয়! গাছে না। উঠতেই এক কদি!” অমনি আর তাহার নিকট হইতে উত্তর আসিল না, হয়তো তাহার জ্যোঠা ভগিনী গম্ভীর ভাবে জ্ঞাতব্য কথাটা জানাইল। আমি বঝিলাম, আমাকে দশ হাত দরে ফেলাই উদ্দেশ্য, আর বন্ধ ভাবে লইবে না। এইরােপ আদব কায়দার অনেক বাঁধন আছে, সবাধীনতার সঙ্গে শাসনও আছে। একটি কোয়েকার পরিবার। ইংলন্ডের নারীগণের উন্নত অবস্থার প্রমাণ সম্বরপ আর একটি বিষয় সমরণ আছে। সমাসোিটশিয়ারে “স্ট্রীট” নামে একটি গ্রাম আছে। সেখানে ইক্ষপী নামক কোয়েকার সম্প্রদায়ভুক্ত একটি পরিবার বাস করেন। সে পরিবারে BB BB DDS BB DBD D D DDSDBD DDDDBD BDS DBDDBD BB BDD কায্যের উপযক্ত বীজ বিক্ৰয়ের কাজ করিতেন। সেই কাজে তিনি বেশ উপাজন করিতেন, এবং মাতু্যকালে যথেষ্ট সম্পত্তি রাখিয়া গিয়াছিলেন। তাঁহার, মাতুত্যু হইলে বড়কন্যাটি পিতার কাজে গিয়া বসিলেন, এবং পর্বোেন্ত ব্যবসায়ে আরও কোনো কোনো ব্যবসায় যোগ করিয়া কারবার ফাঁপাইয়া তুলিলেন। অপরাপর ব্যবসায়ের মধ্যে তাঁহারা যে একটা মহা ব্যবসায় আরম্ভ করিলেন, তাহার কথা বলি। সে জেলাতে অনেক আপেল ফল উৎপন্ন হয়। সে দেশে লোকে আপেল ফলে মদ প্ৰস্তুত করে, সতরাং আপেলের ব্যবসা খর্ব চলে। আমি যে পরিবারটির কথা বলিতেছি, তাঁহারা সকলেই সরাপানবিদ্বেষী, সতরাং তাঁহারা মায়ে-ঝিয়ে এই পরামর্শ করিলেন যে, SRO dit