পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ক্লোড়েই পড়িয়ছেন ও তাহার ক্লোড়েই প্রতিপালিত হইয়াছেন। আমিও মাতুলালয় । হইতে আসিয়া চিন্তার ক্লোড়ে আশ্রয় পাই। আমার জ্ঞানের সঞ্চার হইলে দেখিতাম । যে চিন্তাই আমাদের হত্রী-কন্ত্রী। আমরা তাহাকে দাসী বলিয়া মনে করিতাম না, পড়িত। চিন্তার প্রতাপে পাড়ার লোক সশঙ্কিত থাকিত। চিন্তা এমন সংস্থা ও সবল ছিল যে প্রাতে উঠিয়া ১৮। ১৯ মাইল হাঁটিয়া আমার মাতুলালয়ে তত্ত্ব লইয়া LLL DBBDDB BBD DBB BBBDB DDD DDD সেই শৈশবকালে চিন্তাদাসী বোধ হয় আমাদিগকে বলিয়া দিয়াছিল যে, আমাদের বাটীর সম্পমখস্থ নারিকেলের গাছ রাত্রিকালে দেশ ভ্ৰমণ করে। এক ডাকিনী তাহাতে চাপিয়া বেড়াইতে যায়। ইহাতে আমাদের শিশদলে মহা ভয় হইয়াছিল, পাছে আমাদের নারিকেল গাছ হারাইয়া যায়; কি জানি, ডাকিনী যদি কোথাও রাখিলে ডাকিনীতে গাছ লাইতে পারে না। আমার সমরণ হয়, আমরা কয়েকজন শিশৱতে মিলিয়া সন্ধ্যার পাবে গাছের গায়ে গজাল মারিয়া রাখিয়াছিলাম। বাংলা স্কুলের ছাত্র। গবৰ্ণর জেনারেল লর্ড হাডিঞ্জের রাজত্বকালে দেশে। কতকগলি আদশ বাংলা স্কুল পথাপিত হয়। তাহার একটি আমাদের গ্রামে সস্থাপিত হইয়াছিল। কাঁচড়াপাড়ানিবাসী শ্যামাচরণ গপত নামক একজন ভদ্রলোক তাহার প্রথম পশ্চিডত নিযক্ত হন। মা পাঠশালের গরমহাশয়ের প্রতি বিরক্ত হইয়া আমাকে পাঠশালা ছাড়াইয়া সেই স্কুলে ভতি করাইয়া দিয়াছিলেন। সেখানে গিয়া আমি ‘স্কুল বক সোসাইটি'র প্রকাশিত বর্ণমালা ও মদনমোহন তকালঙ্কারের নবপ্রকাশিত শিশশিক্ষা পড়িতে লাগিলাম। মদনমোহন তকালঙ্কারের শিশশিক্ষায় অনেক পাঠ মিত্ৰাক্ষর ও কবিতার মতো ছিল, সেগলি আমার বড় ভালো লাগিত, দই-একবার পড়িলেই মখস্থ হইয়া যাইত। ইহাতে বর্ণপরিচয়ের ব্যাঘাত হইত। বটে, কিন্তু আমি বর্ণ মিলাইয়া মাখে। মাখে। কবিতা করিতে পারিতাম। গ্রামে ইংরাজী স্কুল। হাডিঞ্জ বাংলা স্কুল সােথাপনের পরেই আমাদের গ্রামে এক ইংরাজী স্কুল পথাপিত হইয়াছিল। হরিদাস দত্ত নামে জমিদারবাবদের বাড়ির একজন ষািবক তখন দেশে শিক্ষাবিস্তার বিষয়ে বড়ই উৎসাহী ছিলেন। ইনি অলপদিন হইল। পরলোকগত হইয়াছেন। অনামান করি, প্রধানত ইহার ও ইহার বয়স্যদিগের যত্নে ও জমিদারবাবদের সাহায্যে ঐ ইংরাজী বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়। আমার মনে আছে যে সেই স্কুলে একজন ইংরাজ হেডমাস্টার লওয়া হইয়াছিল। সেটা গ্রামবাসীদের পক্ষে এক নতন ব্যাপার। সাহেবের সঙ্গে এক কুকুর স্কুলে আসিত, সে সাহেবের টেবিলের তলায় শাইয়া থাকিত। আমরা তাহাকে দেখিয়া বড় ভয় পাইতাম। সাহেব জমিদারবাবদের এক বাগান-বাড়িতে থাকিতেন। আমরা তাঁহার পালিত মরগী ও অন্যান্য পাখি দেখিবার জন্য গিয়া, সেই বাগানে উকি ঝাকি মারিতাম। সাহেবকে RWy