পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৯২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ক্ৰমশ.আিফ্রহ, নাটক বিবিস্তিরের ভূমিকা অভিনয় । ১৮৬৯ সালের বসন্ত কালে i BDBDBD DBiB BD YB DDDD DBBDBDBBLBB DBDBDDB DDDD সংস্কৃত বেণীসংহার নাটকের অভিনয় করিলাম। তাহার বিবরণ এই। সে বারে বি. এ. পরীক্ষাতে সংস্কৃত বেণীসংহার। পাঠ্য ছিল। আমাদের কলেজের উচ্চশ্রেণীর ছাত্রেরা মনে করিলেন, সংস্কৃত বেণীসংহার অভিনয় করিয়া, দেখাইলে বি. এ. ক্লাসের ছেলেদের বিশেষ উপকার হইতে পারে। এই ভাবিয়া তাঁহারা বেণীসংহারের অভিনয়ের যোগাড় করিতে লাগিলেন। অগ্রে তাঁহারা আমাকে সে সংবাদ দেন নাই, অথবা আমাকে তাঁহাদিগের, পরামর্শের অংশী করেন নাই। যখন তাঁহাদের কাজটা কিয়ন্দর অগ্রসর হইয়াছে, তখন আসিয়া আমাকে তাহাতে যোগ দিবার জন্য ধরিলেন। আমার পরামর্শটা মন্দ বোধ হইল না। বিশেষত অভিনয় দেখা আমার বাতিক। বতমান বঙ্গ রঙ্গভূমি সকলে বারাঙ্গনা অভিনেত্রী প্রবিষ্ট করিবার পাবে আমি প্রায় প্রতি শনিবার অভিনয় দেখিতে যাইতাম। স্মরণ আছে যে সোমপ্রকাশের প্রতিনিধিরাপে হরিনাভি হইতে অভিনয় দেখিতে কলিকাতায় আসিতাম। বারাণ্ডগনা অভিনেত্রী যেদিন হইতে আসিল, সেদিন হইতে আমার অন্তধান। সে যাহা হউক, সহাধ্যায়ী ছাত্রেরা যখন আমাকে ডাকিল, তখন তাহদের কমিটিতে থাকিতে রাজি হইলাম এবং নিজে একজন অভিনেতা হইতে প্রস্তুত হইলাম। আমি হইলাম। যধিস্ঠির, আমার বন্ধ যোগেন্দ্র হইলেন অজািন, ও অপর বন্ধ, উমেশ হইলেন অশবত্থামা। কলেজের নিম্নশ্রেণীর কয়েকটি সন্দর সন্দর ছেলেকে মেয়েদের পাট দেওয়া গেল। আমরা মোহাড়া দিয়া সকলকে উত্তমরাপে কৃষ্ণনগর প্রভৃতি কলেজ সকলের বি. এ. ক্লাসের ছাত্ৰাদিগকে টিকিট প্রেরণ করিয়া নিমন্ত্ৰণ করিয়াছি, এমন সময়ে এই অভিনয়ের বিরদ্ধে আমাদের কলেজের মধ্যেই মহা আন্দোলন উপস্থিত হইল। পন্ডিতমহাশয়েরা বলিতে লাগিলেন যে, ছেলেরা BDDBDBBB DDDB BBBD D S BBBB DBDDB BDDBDBD DDDDDDBDBS তাহারা কিছ বাড়াবাড়ি করিতে লাগিল। যাহাকে দিযোধন করিয়াছিলাম সে ভানমতীকে ক্লাসের মধ্যেই ‘প্ৰেয়সী’ বলিয়া ডাকিতে লাগিল, এবং তাহার কাঠালিঙ্গন প্রভৃতি করিতে লাগিল, ইত্যাদি। এই সব কারণে পন্ডিতমহাশয়দিগের আপত্তি প্রবল হইয়া উঠিল। আমি ইহার মধ্যে আছি। জানিয়া তাঁহারা একদিন আমাকে ডাকিয়া পাঠাইলেন। আমি গিয়া দেখি যে, সভাতে আমাদের প্রিন্সিপাল, বড়-বড় অধ্যাপকগণ, আমার মাতুলমহাশয়, ও অপরাপর পণ্ডিতগণ সকলেই সমাসীন আছেন। আমি তো দেখিয়াই কাঁপিয়া গেলাম। দণ্ডডাহা অপরাধীর ন্যায়। তাঁহাদের সম্মখে ভয়ে ভয়ে দাঁড়াইলাম। প্রিন্সিপাল সর্বাধিকারী মহাশয় তাঁহাদের মািখপাত্রস্বরপ হইয়া বলিলেন, . “আমাদের কাহারও ইচ্ছা নয় যে, তোমরা এই অভিনয় কর, ছেলেরা খারাপ হইয়া যাইতেছে। তুমি ইহার ভিতর কিরাপে গেলে ?” আমি। আজ্ঞে, আমি আগে ইহার ভিতর ছিলাম না, পরে গিয়াছি। এবার বেণীসংহার বি. এ. কোসে আছে, অভিনয় করিয়া দেখাইলে আমাদেরও উপকার, অন্য ছেলেদেরও উপকার। প্রিন্সিপাল । তাহা হইলেও কলেজের ছেলে খারাপ করা কি ভালো ? আমি। যা কিছ দেখিতেছেন দদিনের জন্য, তাহার পর সব থামিয়া যাইবে। O