পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৪৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম পরিচ্ছেদ হৃদয় পরিবর্তনের ফল-দৃঢ় প্ৰতিজ্ঞা, আত্মনিগ্ৰহ ও সমাজ সংস্কারে ঝাম্প প্ৰদান هو والا وراوا والا হৃদয় পরিবর্তনের প্রথম ফল, প্ৰসন্নময়ীকে গ্রহণ ও তাহাকে গ্ৰহণ করিতে পিতাকে সন্মত করা।--দ্বিতীয় বার বিবাহের পরই আমার হৃদয় পরিবর্তন হইলে, আমি নিরপরাধা প্ৰসন্নময়ীর প্রতি যে অন্যায়াচরণ হইয়াছে, তাহার প্রতিবিধানের জন্য ব্যগ্ৰ হই। সে মনের কথা কেবল আমার মাতামহী ঠাকুরাণীর নিকট ব্যক্ত করিয়াছিলাম। প্ৰসন্নময়ীর পিত্ৰালয় আমার মাতুলালয়ের সন্নিকট। সুতরাং তিনি লোক পাঠাইয়া প্ৰসন্নময়ীকে নিজ ভবনে আনিলেন । আমাকে সংবাদ দিবা মাত্র আমি গিয়া প্ৰসন্নময়ীর সহিত সাক্ষাৎ করিলাম এবং অপরাধের মার্জন ভিক্ষা করিলাম। তৎপরে বহু দিন প্ৰসন্নময়ী আমার মাতুলালয়েই থাকেন। আমি শনিবার শনিবার সেখানে যাইতাম । আমি প্ৰসন্নময়ীর সহিত মিলিত হইয়াছি জানিয়া আমার পিতা প্রথমে অতিশয় ক্রুদ্ধ হন। কিন্তু পরে আমার অনুনয় বিনয়ে ও মাতা ঠাকুরাণীর অনুনয় বিনয়ে আৰ্দ্ধ হইয়া প্ৰসন্নময়ীকে নিজ ভবনে লইয়া যাইতে প্ৰস্তুত হন। ১৮৬৭ সালে তিনি আবার আমাদের গৃহে পদাৰ্পণ করেন । প্ৰথম সন্তান হেমলতার জন্ম।—১৮৬৮ সালের ১১ই আষাঢ় আমার পৈতৃক ভবনে আমার প্রথম সন্তান হেমলতার জন্ম হয়। হেম জন্মিলে বাবার সহিত আমার আর এক মনোবাদের কারণ উপস্থিত হইল।