পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৮৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>r്, ) উপবীত ত্যাগ " S» (፩ዓ করিলেন, আমি দীক্ষিত হইতে প্ৰস্তুত কি না। আমি বলিলাম, প্রকাশ্যে দীক্ষাটা ত বাড়ার ভাগ, আমি ত ব্ৰাহ্মই আছি। যাহা হউক, অপরাপর যুবকের সহিত আমিও উক্ত দিবস। দীক্ষাগ্ৰহণ করিব, এইরূপ স্থির হইল। তদনুসারে আমরা ২১ জন যুবক দীক্ষিত হইলাম। তন্মধ্যে কেশব বাবুর কনিষ্ঠ ভ্রাতা কৃষ্ণবিহারী সেন, আমার সম্মানিত বন্ধু আনন্দমোহন বসু, পরলোকগত বন্ধু বুজনীনাথ রায় ও শ্রদ্ধেয় বন্ধু শ্ৰীনাথ দত্ত মহাশয়দিগের নাম বিশেষ উল্লেখযোগ্য। ইহারা চিরদিন ব্রাহ্মধৰ্ম্মের ও ব্ৰাহ্মসমাজের সেবা করিয়াছেন ও €f(\SCSS উপবীত ত্যাগ।—প্ৰকাশ্য ভাবে ব্ৰাহ্মধৰ্ম্মে দীক্ষিত হইলেই, উপবীতট আর রাখিব কি না, এই প্রশ্ন উপস্থিত হইল। তৎপূর্বে উপবীত কখনও আমার গলায় থাকিত, কখনও থাকিত না ; দীক্ষার সময়ে ছিল না। আমি স্থির করিলাম, আর লইব না। কিন্তু এই বিষয় লইয়া আত্মীয় স্বজনের সহিত বিরোধ উপস্থিত হইল । আমি চিরদিন দেখিতেছি, কোনও একটা গুরুতর কৰ্ত্তব্য স্থির করিলে তাহা করিয়া উঠিতে আমার বিলম্ব হয়। তদুপযোগী বল আমার প্রকৃতিতে এক বারে আসে না । বার বার উঠি ও পড়ি, প্রবৃত্তি কুলের সহিত প্ৰবল সংগ্ৰাম করিতে হয় ; কখনও তাহারা জয়লাভ করে, কখনও আমি জয়লাভ করি ; অবশেষে কিছু দিনের পর বল পাইয়া উঠিয়া দাড়াই। এক লম্ফে স্বর্গে উঠা, এক উদ্যমে নিস্কৃতি লাভ করা, এক প্ৰতিজ্ঞাতে প্ৰবৃত্তি দমন করিয়া ফেলা, আমার ভাগ্যে শ্ৰীয় ঘটে না । আমি ভাবিয়া চিন্তিয়া এই স্থির জানিয়াছি, আমি যখন উঠিতে চাহিতেছি তখনও যে পড়িয়া যাই, ইহাতে ঈশ্বর স্বামীকে দেখাইতে চান যে, যে-শত্রুর হস্তে আমি আগ্ৰে আত্মসমর্পণ *ািরয়াছি, তাহার শৃঙ্খল হঠাৎ ভগ্ন করা কত কঠিন। ইহাতে