পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৫১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


»tz१8-१७ ] রামকৃষ্ণ পরমহংসের সহিত যোগ Rè 0 নিরাশ্রয় দীন দরিদ্রের প্রতি তার দয়া দেখিয়া সকলে মুগ্ধ হইত। মেয়েটি আসিয়া “মা”। বলিয়া ডাকিয়াছে, আর যায় কোথায় ? আমনি তাহাকে কোলে টানিয়া লইলেন। অগ্রে ছিল লক্ষ্মীমণি, এখন আসিল এই মেয়ে ; তঁহার নিজের এক পুত্র ও চারি কন্যা বাদে আর দুইটি কন্যা বাড়িল । মেয়েটি প্রসন্নময়ীর আশ্রয়ে থাকিয়া গেল। খ্ৰীষ্টীয় হাই চর্চের সাহিত্য পাঠ।-ভবানীপুর বাস কালের আর দুইটি স্মরণীয় বিষয় আছে। প্রথম, এই সময় এক জন খ্ৰীষ্টীয় পাদরীর সহিত আমার বিশেষ বন্ধুতা হয়। তিনি হাই চার্চের বড় গোড়া ছিলেন। আমি তঁহার ভবনে অনেক সময় যাপন করিতাম। তাহার প্ররোচনায় আমি ঐ সময় হাই চার্চের অনেক পুস্তক পড়ি। তাহার মধ্যে জন হেনরী নিউম্যানের একখানি গ্ৰন্থ (Apologia pro Vita, sua) বিশেষ উল্লেখযোগ্য। এই পুস্তকখানি পড়িয়া আমি বড়ই উপকৃত হই। দুই তিন মাস তাহার প্রভাব আমার মনে জাগরূক ছিল। নিউম্যান কিরূপে সত্যানুরাগ দ্বারা চালিত হইয়া ভ্ৰমে গিয়া পড়িলেন, তাহ দেখিয়া আমার মানে বিষাদ মিশ্রিত এক আশ্চর্য্যের ভাব হয় । রামকৃষ্ণ পরমহংসের সহিত যোগ।—এইরূপে এক দিকে যেমন খ্ৰীষ্টীয় শাস্ত্র ও খ্ৰীষ্টীয় সাধুর ভােব আমার মনে আসে, অপর দিকে এই সময়েই রামকৃষ্ণ পরমহংসের সহিত আমার আলাপ হয়। তাহার ইতিবৃত্ত এই। আমাদের ভবানীপুর সমাজের এক জন সভ্য দক্ষিণেশ্বরে বিবাহ করিয়াছিলেন। তিনি মধ্যে মধ্যে শ্বশুর বাড়ী হইতে আসিয়া আমাকে বলিতেন যে, দক্ষিণেশ্বরের কালীর মন্দিরে এক জন পূজারি ব্রাহ্মণ আছেন, তাহার কিছু বিশেষত্ব আছে। এই মানুষটি ধৰ্ম্ম সাধনের জন্য অনেক ক্লেশ স্বীকার করিয়াছেন। শুনিয়া রামকৃষ্ণকে দেখিবার ইচ্ছা ^^^ উইল। যাইব যাইব করিতেছি, এমন সময় মিরার কাগজে দেখিলাম যে, কেশবচন্দ্র সেন মহাশয় তঁর সঙ্গে দেখা করিতে গিয়াছিলেন, এবং তঁাহার