পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৯৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৮৭৮] . সাধারণ ব্ৰাহ্মসমাজের নামকরণ ও তাহার ফল 5 @ዓ ঠুলি দিয়া, চাবুকের উপর চাবুক লাগাইয়া, তাহাদিগন্সে সোজা পথে চালাইতে হয় ; বিধাতা তেমনি করিয়া আমাকে তঁাহার সেবার পথে আনিয়াছেন। ধন্য র্তার মহিমা! দৰ্পহারী ভগবান আমার দৰ্প চু৭ করিবার জন্যই সময়ে সময়ে আমার মনঃকল্পিত অভিমান মন্দির ভাঙ্গিয়া ধূলিসাৎ করিয়াছেন, নতুবা আমার দম্ভপ্রবণ প্রকৃতি অহঙ্কারে পূর্ণ হইয়া থাকিত। তিনি আমাকে কি শিক্ষাই দিয়াছেন । আর একটা কথা। আমি যদি নিজে প্রলুব্ধ ন হইতাম, যদি নিজে সংগ্রামের মধ্যে না পড়িতাম, কোন পথ দিয়া মানুষ অধঃপাতে যায় তাহার আভাস যদি না পাইতাম, তাহা হইলে কি প্রলুব্ধ ও অধঃপতিত নরনারীকে সমবেদন দিতে পারিতাম ? বুদ্ধিমান গৃহস্থ যেমন যে ছেলেকে কোনও বিষয়ের তত্ত্বাবধায়ক করিতে চান, তাহাকে সেই বিষয়ের নিম্নতম ধাপ হইতে পা পা করিয়া তুলিয়া থাকেন, তাহার ভ্ৰম দুঃখ প্রলোভন সংগ্ৰাম সমুদয় তাহাকে দেখাইয়া থাকেন, তেমনি মুক্তিদাতা বিধাতা তাহার যে দাসকে অপরের সাহায্যের জন্য নিযুক্ত করেন, তাহাকেও ভাল মন্দ দুই দেখাইয়া থাকেন। বিচিত্ৰ তাহার বিধাতৃত্ব, ধন্য র্তাহার করুণা ! সাধারণ ব্ৰাহ্মসমাজের নামকরণ ও তােহর ফল -এখন সাধারণ ব্ৰাহ্মসমাজের কথা বলি। প্ৰথম বক্তব্য, সাধারণ ব্ৰাহ্মসমাজ নাম কিরূপে হইল ? আমরা যখন স্বতন্ত্র সমাজ স্থাপন করি, তখন আমাদের মনে দুইটি ভাব প্ৰবল ছিল। প্ৰথম, ভারতবর্ষীয় ব্ৰাহ্ম- , সমাজে একনায়কত্ব দেখিয়াছি, কেশব বাবু সৰ্বেসৰ্ব্বা ; এখানে তাহা হইবে না, এখানে সাধারণতন্ত্র প্রণালী অনুসারে। কাৰ্য্য হইবে। দ্বিতীয়, কেশব বাবু ব্ৰাহ্মগণের ও ব্রাহ্মসমাজ সকলের প্রতি উপেক্ষা প্ৰকাশ করিয়াছেন ; এখানে তাহা হইবে না, এখানে সভ্যগণের ও সমাজ সকলের মত গ্ৰহণ করিয়া কাৰ্য্য হইবে। আমাদের মনে এই দুইটি »9