পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৩৮০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


àOR শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত [ ১৫শ পরিক আমি । সে কি ? কার নামে নালিশ করবেন ? যদুমণি । কেশবচন্দ্ৰ সেনের নামে । আমি। সে কি ! কেশব বাবুর নামে নালিশ ! তৎপরে যদু বাবু বলিলেন যে, কেশব বাবু কমল কুটীর কিনিবার সময় তঁর নিকট কয়েক সহস্র টাকা কার্জ লইয়া একখানি হ্যাণ্ডনোটি লিখিয়া দিয়াছেন, তাহাতে ষ্ট্যাম্প দেন নাই। পরে কথা হইয়াছে যে, কমল কুটীরের উত্তরে মঙ্গলবাড়ী পাড়ায় যদুমণির জন্য একটি বাড়ী নিৰ্ম্মিত হইবে ; সেই জমির দাম ও গৃহ নিৰ্ম্মাণের ব্যয় বাদে যে টাকা প্ৰাপ্য থাকিবে তাহা যদুমণিকে প্রদত্ত হইবে। এই প্ৰস্তাবে যদুমণি স্বীকৃত হইয়াছিলেন, কিন্তু পরে তঁহার চিত্ত বিচলিত হইয়াছে। আমি বলিলাম, “বিনা ষ্ট্যাম্পে হ্যাণ্ডনোটখানা দেওয়া ভাল হয় নাই । যদি হাণ্ডনেট দিলেন, তবে ষ্ট্যাম্প দিয়ে দেওয়াই ভাল ছিল। কিন্তু আপনি এজন্য কেশব বাবুর প্রতি সন্দেহ করলেন কেন ? হাণ্ডনেটেরই বা কি প্রয়োজন ? তঁর পৈতৃক সম্পত্তির অংশ কি নাই ? তিনি কি মনে করলে আপনার টাকা দিতে পারেন না ? আর আপনি তঁাকে না ব’লেই বা ছুটে বাহির হলেন কেন ?” দেখিলাম, তঁহাকে বুঝাইয়া শান্ত করাই দায়। র্তাহার চক্ষু দুটির প্রতি দৃষ্টিপাত করিয়াই মনে হইল, উন্মাদের লক্ষণ । তৎপরে যে ভয়ানক কথা বলিলেন, তাহা শুনিয়া আর আমার সন্দেহ রহিল না । তিনি বলিলেন, “গত কল্য বৈকালে ঝি আমার দুধ জ্বাল দিতেছিল, কেশব বাবুর গৃহিণী ঝিকে বলিলেন, “ঝি তুই কাজে যা, আমি দুধ জ্বাল দিচ্ছি।” বলিয়া দুধ জ্বাল দিতে বসিলেন। বলুন, আমার দুধ জ্বাল দিবার জন্য কেশব বাবুর স্ত্রীর এত গরজ কেন ് আমি। এ ত খুব ভাল কথা ; এজন্য ত তার প্রতি আপনার কৃতজ্ঞ হওয়াই উচিত। আপনি তঁদের বাড়ীতে থাকেন, তঁরা সন্তানের ন্যায়