পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৩৮৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


“ON957 শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত [ ১৬শ পরিঃ মুদ্রাযন্ত্র সমাজের সম্পত্তি করাইবার জন্য সমাজের কমিটিতে গাঙ্গুলীশ্রমুখ বন্ধুগণের সহিত তর্ক বিতর্ক করিতে হইত। বন্ধুরা কেহ কেহ বলিতেন, ‘নিজে টাকা ধার করিয়া প্রেস করিয়াছেন, নিজের সম্পত্তি করিয়া রাখুন। না ? এত ঝগড়া কেন ?” আমার মনের ভাব সেরূপ ছিল না। আমার বিশ্বাস জন্মিয়াছিল, সমাজের নিজের একটি মুদ্রাযন্ত্র চাই, যাহা হইতে ব্ৰাহ্মধৰ্ম্ম প্রচারোপযোগী পুস্তক পুস্তিকাদি প্ৰকাশিত হইবে। এই জন্যই ইহার নাম ‘ব্রাহ্মমিশন প্রেস’ রাখিয়াছিলাম, এবং সমাজের হস্তে ইহাকে অৰ্পণ করিবার জন্য চেষ্টা করিতেছিলাম । কমিটির সভ্যগণকে আমার ভাবাপন্ন করিতে না পারিয়া কয়েক বৎসর প্রেসটি নিজের হাতে রাখিতে হয়, এবং চিন্তার ভার গ্ৰহণ করিতে হয়। অবশেষে ১৮৮৭ সালে সমাজ ইহা গ্ৰহণ করেন। বড়বেলুন গ্রামে প্রচার যাত্রী -১৮৮৩ সালের একটি স্মরণীয় বিষয়, বৰ্দ্ধমানের অন্তর্গত বড়বেলুন নামক গ্রামে প্রচার যাত্ৰা । এই গ্রামে পুণ্যদাপ্রসাদ সরকার নামে এক জন অনুরাগী ব্রাহ্ম বাস করিতেন। তিনি কয়েক জন বন্ধুকে তঁাহার গ্রামে গিয়া ২৪শে মে তারিখে ব্ৰহ্মোৎসব করিবার জন্য অনুরোধ করিয়াছিলেন। তন্মধ্যে আমিও ছিলাম। আমরা কয়েক জন বন্ধু মিলিয়া যথাসময়ে বড়বেলুনে গিয়া উপস্থিত হইলাম। আমাদের পৌছিতে সন্ধ্যা হইয়া গেল। আমরা গিয়া পুণ্যদাপ্রসাদের নিৰ্ম্মিত একটি খড়ের ঘরে আশ্রয় লইলাম । পর দিন প্ৰাতঃকালে উঠিয়া আমি একটি যুবককে কি একটা জিনিস ক্রিয় করিবার জন্য বাজারে পাঠাইলাম। সে আসিয়া সংবাদ দিল যে দোকানদার আমাদিগকে জিনিসপত্র বিক্রয় করিবে না। আমার কিছু আশ্চৰ্য্য বোধ হইল। কারণ ব্ৰাহ্মধৰ্ম্ম প্রচারের জন্য অনেক বার অনেক নগরে ও গ্রামে গিয়াছি, কিন্তু মানুষের এরূপ ভাব কোথাও দেখি নাই । পুণ্যদাপ্রসাদ আসিয়া বলিলেন, গ্রামের জমিদাক্স বাবু দোকানদারদিগকে