পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৩৮৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8 শিবনাথ শাস্ত্রীর জুমাত্মচারিত ( ১৬শ পরিঃ পথিমধ্যে এক বীভৎস ব্যাপার উপস্থিত। দেখি, এক জন লোক নগ্নদেহ হইয়৷ তােহর পরিধানের ধুতিখানি মাথায় বাধিয়াছে, এবং তাহার হুকাটি বঁাশীর মত’ করিয়া নাচিতে নাচিতে আমাদের দিকে আসিতেছে । আমি বন্ধুদিগকে বলিলাম, ‘ওদিকে চাহিও না, গেয়ে চ’লে যাও।” কিয়ৎক্ষণ পরে দেখি, সে লোকটি লজ্জা পাইয়া কাপড় পরিয়াছে এবং অধােবদনে এক দিকে চলিয়া যাইতেছে। তার পর কিয়দ্দূর অগ্রসর হইলে আর এক বিস্ত্ৰ উপস্থিত হইল। দেখি, এক দল নিম্ন শ্রেণীর লোক মদ খাইয়া, ঢোল প্ৰভৃতি বাজাইতে বাজাইতে ও চীৎকার করিতে করিতে হুড়মুড়া করিয়া আমাদের উপরে আসিয়া পড়িল। আমি সঙ্গীদিগকে বলিলাম, “ওদের যাবার পথ ছেড়ে দাও, তোমাদের গান চলুক, ওদিকে চেয়ে দে’খো না ।” তাহারা পথ পাইয়া চলিয়া গেল। আমরা আবার অগ্রসর হইলাম। শেষে আমরা একটা চৌরাস্তায় গিয়া উপস্থিত। আমি বলিলাম, “দাড়িয়ে খুব কীৰ্ত্তন কর, দেখি ওরা কত ক্ষণ দ্বার বন্ধ ক’রে থাকে।” কীৰ্ত্তন খুব জমিয়া গেল। অন্যে না শুনুক, আমাদের কঠিন হৃদয় আদি হইতে লাগিল। শেষে দেখি, খট করিয়া একটা বাড়ীর দরজা খুলিল ও কয়েক জন লোক আসিয়া আমাদের নিকট দাড়াইল । কিয়ৎক্ষণ পরে দেখি, আর একটা বাড়ীর দরজা খুলিল, আবার কয়েক জন লোক আসিয়া দাড়াইল । এইরূপে দেখিতে দেখিতে বহুসংখ্যক লোক আমাদিগকে ঘিরিয়া ফেলিল। তখন আমি বলিলাম, “আমাকে একটা উঁচু কিছু এনে দেও ত, আমি কিছু বলব।” পুণ্যদা ছুটিয়া গিয়া নিকটস্থ কোনও এক বাড়ী হইতে একটা খালি কেরোসিনের বাক্স আনিয়া দিলেন ; আমি তাহার উপরে উঠিয়া বক্তৃতা আরম্ভ করিলাম,- তোমরা দ্বার দিয়ে ছিলে কেন ? ভগবানের নাম শুনবে না ? ভগবানের সঙ্গে কি তোমাদের বিবাদ আছে ? তিনি ত সকলের প্রভু, সকলের পরিত্রাতা, ইত্যাদি ইত্যাদি। এমন জোরে ও সুযুক্তিপূর্ণ ভাষাতে বক্তৃতা