পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৪২৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ਇy টয়নবী হল ও পীপর্লস প্যালেস Öዓኻ S DDDBB TT DDD DDDS BB DD DBBD BDBBD BBBD BDBBDB কাৰ্য্যে দিবেন ; তিনি নিম্ন শ্রেণীর মধ্যে শিক্ষা বিস্তার করিবার প্ৰয়াসে স্বীয় জীবন উৎসর্গ করিবেন। এই সঙ্কল্প করিয়া তিনি লণ্ডন সহরের পূৰ্ব্ব ভাগে আসিয়া একটি বাড়ী ভাড়া করিয়া তাহাতে প্রতিষ্ঠিত হইলেন ; কারণ ঐ বিভাগেই অধিকাংশ নিম্ন শ্রেণীর শ্রমজীবী লোকের বাস। টয়নবী প্রথম প্রথম ঐ শ্রেণীর লোকদিগকে নিজ ভবনে ডাকিয়া আনিয়া তাহদের সঙ্গে পাঠ ও মৌখিক উপাসনাদি দ্বারা কাৰ্য্যারম্ভ করিলেন। ক্রমে তঁাহার কাৰ্য্যের আশ্চৰ্য্য ফল দেখা গেল, এবং অপর কয়েক জন শিক্ষিত যুবক আসিয়া তঁহার সহিত যোগ দিলেন। তঁহারা নৈশ বিদ্যালয় স্থাপন করিয়া শ্রমজীবী দিগকে রীতিমত শিক্ষা দান করিতে প্রবৃত্ত হইলেন। তঁহাদের দৃষ্টান্তের ফল ত্বরায় ফলিল। নৈশ বিদ্যালয় করিয়া শ্রমজীবী দিগকে শিক্ষা দান করিবার জন্য চারি দিকে আয়োজন হইতে লাগিল । নানা স্থানে “ওয়াকিং মেনস ইনষ্টিটিউট’ ( Working Men's Institute ) নামে পাঠাগার সকল নিৰ্ম্মিত হইতে লাগিল। ক্রমে টয়নবীর মৃত্যু হইল। তখন তঁাহার স্বদেশবাসীগণ র্তাহার প্রতি সন্ত্রম প্রদর্শনার্থ লণ্ডনের ঐ পূৰ্ব্ব বিভাগে তাহার কার্য্য ক্ষেত্রের সন্নিধানে “টয়নবী হল” ( Toyonbee Hall) নামে শিক্ষা মন্দির নিৰ্ম্মাণ করিলেন। তাহা অদ্যাপিও নিম্ন শ্রেণীর মধ্যে শিক্ষা বিস্তারের জন্য ব্যবহৃত হইতেছে। এতদ্ভিয় লণ্ডনের ঐ পূৰ্ব্ব ভাগেই ‘দি পীপলস প্যালেস’ (The People's Palace ), অর্থাৎ “প্রজাকুলের প্রাসাদ” নামে এক প্ৰকাণ্ড অট্টালিকা নিৰ্ম্মিত হইল, তাহা এক্ষণে নিম্ন শ্রেণীর শিক্ষালয় রূপে ব্যবহৃত হইতেছে। আমি সে প্রাসাদ দেখিয়াছি। তাহাতে নিম্ন শ্রেণীর জন্য পাঠাগার, পুস্তকালয়, রঙ্গালয়, ভোজনাগার প্রভৃতি সকলই আছে। ঐ প্রাসাদের মধ্যে দণ্ডায়মান হইলে ইংরাজদের পৱহিতৈষণার নিদর্শন দেখিয়া শরীর কণ্টকিত হইতে থাকে।