পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৪৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ɔr শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত [ ১৭শ পরিঃ শ্রমজীবীদিগের শিক্ষালয়।— আমি এক দিন; ওয়াকিং মেনার্স ईनछिठिहछत (Working Men’s Institute) একটি পাঠাগার দেখিতে 疆 গেলাম। - একটি ১৭১৮ বৎসর বয়স্ক শ্রমজীবী যুবক আমাকে লইতে আসিয়াছিল। সে ব্যক্তি তখন এক জন দেকরার সহকারীর কাজ করিত। সে আমাকে সঙ্গে করিয়া উত্তর লণ্ডনে এক ইনষ্টিটিউটে লইয়া গেল। সে এক প্ৰকাণ্ড বাড়ী। প্ৰবেশ করিয়া দেখি, তাহাতে নানা প্ৰকার আলোচনা ও উপদেশাদির জন্য নানা ঘর। কোন ঘরের দ্বারে লেখা রহিয়াছে “কেমিষ্ট্র’ (Chemistry); শুনিলাম, সে ঘরে সপ্তাহের মধ্যে কয়েক দিন সন্ধ্যার সময় কিমিতি বিদ্যা বিষয়ে উপদেশ হয় ; ঘরে প্রবেশ করিয়া দেখি, একটি ছোট খাটি ল্যাবরেটরি প্রস্থত। কোন ঘরের দ্বারে লেখা ‘ফিজিকস ( Physics ) অর্থাৎ পদার্থ বিদ্যা ; ঘরে প্রবেশ করিয়া দেখি, পদার্থ বিষ্ঠা বিষয়ে উপদেশের আয়োজন। এইরূপ নানা ঘরে নানা আয়োজন দেখিলাম। সম্পাদক মহাশয়ের সহিত আলাপ করিয়া জানিলাম, তিনি তৎপূর্বে চৌদ্দ বৎসর কাল ঐ কাজ করিতেছেন, বেতন লন না। প্রতি দিন বৈকালে নিজের আপীস হইতে আসিয়া আহারান্তে সন্ধ্যার সময় ইনষ্টিটিউটে আসেন, এবং রাত্রি এগারটা পৰ্য্যন্ত কাজ করেন। এই পরিশ্রম চৌদ্দ বৎসর চলিয়াছে । ভাবিলাম, কি স্বদেশহিতৈধিতা ও পরহিতৈষণা ! ইনষ্টিটিউটের মধ্যে দুইটি বড় ঘরে এক প্ৰকাণ্ড লাইব্রেরি দেখিলাম। শুনিলাম, শ্রমজীবীগণ সেই লাইব্রেরি হইতে বই লইয়া পাঠ করে । তৎপরে বাহির হইয়া উঠানে গিয়া দেখি, ছাত্র ও ছাত্রীগণের শারীরিক ব্যায়াম ও খেলার জন্য সমুদয় বন্দোবস্ত আছে। ছাত্র ও ছাত্রীগণের জন্য দুইটি স্বতন্ত্র প্রাঙ্গন। বক্ততাদি শোনার পর সেই সকল প্রাঙ্গনে একটু খেলাও হইয়া থাকে। শুনিলাম, এই প্ৰকাণ্ড ভবন দেশহিতৈষীগণের স্বতঃপ্ৰবৃত্ত দানের দ্বারা নিৰ্ম্মিত হইয়াছে, এবং এখানে যে সকল বক্তৃতাদি দেওয়া হয়,