পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৫৪৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


f唯] · জননীর ধৰ্ম্মভাৰ। By শুনিতে ভালবাসিতেন ; অন্ততঃ আমার মাতাঠাকুবাণী এইরূপ মনে করিতেন। কারণ, কোনও ক্রিয়া কৰ্ম্ম করিবার সময়ে ধৰ্ম্মে যত দূর চায়, শাস্ত্ৰে যাহা বলে, তাহা করিয়া বাবা সন্তুষ্ট হইতেন না ; এমন করিয়া করিতে চাহিতেন যাহাতে সকলে ধন্য ধন্য করে। ইহা ষে সকল স্থলে প্ৰশংসাপ্রিয়তা হইতে উৎপন্ন হইত, তাহা নহে ; বাবার সহৃদয়তাই অনেক স্থলে ইহার মূলে থাকিত। লোককে দিতে খাওয়াইতে তিনি ভালবাসিতেন। কিন্তু আমার মনে হয়, তাহার প্রকৃতিতে একটু প্ৰশংসাপ্রিয়তাও বোধ হয় ছিল। যাহা হউক, মা এইটুকুও সহ্য করিতে পারিতেন না। এই প্রশংসাপ্রিয়তার গন্ধাটুকু থাকাতে আমার বাবার ক্রিয়া কৰ্ম্মে মা বড় আস্থা রাখিতেন না। বলিতেন, “তুমি ত ধৰ্ম্মার্থে তত কর না, যত “ভ্যাল রে পণ্ডিত' শোনবার জন্যে কর।” এই লইয়া দুই জনে অনেক বার বিবাদ হইতে দেখিয়াছি। মা ধৰ্ম্ম কৰ্ম্মের মধ্যে কোনও প্ৰকার অভিসন্ধির গন্ধ সহস্থা করিতে পারিতেন না । যাহা কিছু অসৎ, যাহা কিছু অপবিত্র, তাহার প্রতি মাতার এত ঘুণা ছিল যে, শৈশবে আমি এবং আমার ভগিনীগণ পাড়ার বালক বালিকাদের সঙ্গে মিশিয়া কত যে খারাপ বিষয় দেখিতাম, কত খারাপ কৃথা শুনিতাম, তাহার একটিও বাড়ীতে আনিতে সাহস করিতাম না । আমি এক বার একটি খারাপ কথা বাড়ীতে উচ্চারণ করিয়া যে সাজা পাইয়াছিলাম, তাহা যথাস্থানে লিখিয়াছি।*।। মা ভালবাসিবার সময় ফুলের ন্যায় কোমল, অথচ শাসন করিবার সময় লৌহের ন্যায় কঠিন হইতেন। অতএব ইহা আমি আকুষ্ঠিত ভাবে বলিতে পারি যে, আমি যে ঈশ্বরে ও পরকালে, এবং সত্যে ও নিজ কৰ্ত্তব্যে আস্থা রাখিতে শিখিয়াছি, তাহা

  • ২৬ পৃষ্ঠা দেখা ।