পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৫৫১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


l 种哆} · बफुभांग মামার পড়ার নেশা এমনি প্রবল ছিল যে, রাত্রিা ১১টার সময় বড় মামী যখন গৃহকাৰ্য্য সমাধা করিয়া শয়ন করিতে গেলেন, তখন দেখিলেন যে বড় মামা এমনি পাঠে নিমগ্ন যে এক বার মামীর দিকে চাহিয়াও দেখিলেন না। মামী গায়ে পড়িয়া কথা কহিতে গেলেন, বড় মামা বাম হস্তেল। ইসারা করিয়া তাহাকে থামিতে আদেশ করিলেন। মামী মানিনী হইয়া দমা করিয়া আছাড়িয়া বিছানাতে পড়িলেন, সে রাত্রে আর মামার সহিত কথা কহিলেন না। বাস্তবিক, আমি অনেক দিন রাত্ৰি ১১টার সময় শয়ন করিতে যাইবার সময় দেখিয়াছি, বড় মামা পাঠে নিমগ্ন ; আবার রাত্রিশেষে ৪টার সময় উঠিয়া দেখিয়াছি, বড় মামা পাঠে নিমগ্ন। বিস্মিত হইয়া ভাবিয়াছি, তবে তিনি ঘুমান কখন ! ১৮৫৮ সাল হইতে সোমপ্রকাশ কাগজ বাহির হইলে এই নির্জন বাস ও পাঠাভ্যাস অতিরিক্ত মাত্রায় বাড়িয়া গিয়াছিল। যখন তিনি তঁহার ছাপাখানা ও সোমপ্ৰকাশ কাগজ আঁৰ্তাহার বাসগ্রাম চাঙ্গড়িপোতাতে তুলিয়া লইয়া মাতলা রেলওয়ের ডোল প্যাসেঞ্জার হইলেন, তখনও দেখিতাম, গাড়ি আসিতে বিলম্ব আছে, নানা জনে নানা কথা কহিতেছে, তিনি এক পাশে তন্মনস্ক হইয়া কলেজে যাহা পড়াইবেন, , সেই পুস্তক পড়িতেছেন। গাড়ির মধ্যে তঁহার সঙ্গে উঠিয়া অনেক বার দেখিয়াছি, নানা জনে নানা প্রসঙ্গ করিতেছেন, তিনি কিছুতেই বড় একটা যোগ দিতেছেন না, হু-হী করিতেছেন মাত্র ; অধিকাংশ সময় হয় নয়ন মুদ্রিত করিয়া ঢুলিতেছেন, না হয় কলেজের পুস্তক দেখিতেছেন। কেবল, যাহাতে কোনও অন্যায় বা অধৰ্ম্মেব প্রতিবাদ আছে। এরূপ কোনও আলোচনা উঠিলে, ও তঁহার মত জিজ্ঞাসা করিলে, তঁাহার মুখশ্ৰী বদলিয়া যাইত ; অন্যায়ের তীব্র প্রতিবাদ করিতেন। বলিতে কি, তিনি টেনে যে-কামরাতে থাকিতেন, সেই সময়ের জন্য সে-কামরার হাওয়া যেন উন্নত স্বভাব ধারণ কম্বিত । سطحاً