পাতা:আত্মচরিত (৪র্থ সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৩১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৮৬২-৬৭ ] জগৎবাবুর শুiালকাপুৰী ; বাল্যবিবাহেব প্ৰতি ঘৃণা ১১৫ আসিয়া বসিতেন, এবং আমাব ও মহিমেব পড়া দেখিতেন, এবং নানা ভাল কথায় কাল কাটাইতেন। জগৎবাবুর শ্যালকপুত্রী। বাল্যবিবাহের প্রতি ঘৃণা - আমবা এই বাড়ীতে আসাব পাব মাসীব এক ভ্রাতুষ্পপুত্ৰী, ১৫১৬ বৎসরের বালিকা, তাহাদেব নিকট আসিয়া প্ৰতিষ্ঠিত হইল। সে ২১ দিদেব মধ্যেই আমাকে দাদা কবিয়া লইল, এবং চুম্বকে যেমন লৌহ লাগে তেমনি যেন আমাতে লাগিয়া গেল। পিতামাতা ঐ বালিকাটাকে শৈশবে একজন পৰিণত বয়স্ক বিপত্নীক ব্যক্তিব সহিত বিবাহ দিয়াছিলেন। বালিকাটি বোধ হয। পতিব নিকট বা পতিগৃহে ভাল ব্যবহাব পাইত না । কাবণ শ্বশুবাবাডীব কথা তুলিলেই দাবন্দব ধাবে তাহাব দুই চক্ষে জলধারা বচিত ; এবং তাহা দেখিয়া বাল্যবিবাহেব প্ৰতি আমাব ঘৃণা বাড়িয়া যাইত। আমি সাবধান হইয়া বালিকাটীব নিকট তাহাৰ শ্বশুবৰাড়ীৰ কথা তুলিতাম না, তাকে পড়াশোনায় গল্পগাছায় ভুলাইয়া ব্যাখিতাম। বালিকাটী প্রাতে গৃহকৰ্ম্মে পিসীৰ সহায়তা কবিতা, আমাৰ নিকট আসিতে পাবিত না ; কিন্তু বৈকালে আমি ও মহিম কলেজ হইতে আসিলেই সে আমাদেব গৃহ আশ্রয় কবিতা, সন্ধ্যাব পাব আহাৰ করিয়াই আমাদেব ঘবে আসিত এবং বান্ত্ৰি ১০টা ১১টা পৰ্য্যন্ত থাকিত। আমি তাহাকে ও মহিমকে পডাইতাম, লিখিতে শিখাইতাম ; ভাল ভাল গ্ৰায় শুনাইতাম ; আমাব সেই পুৰ্ব্বকালেব উন্মাদিনীৰ অভাব যেন কিয়াৎপৰিমাণে পূর্ণ হইত। অনেক দিন এরূপ হইত যে, আমি পড়িতে বসিতাম, সে ও মহিম ঘুমাইয়া পড়িত। আমি শয়নেৰ পূর্বে তাহাকে তুলিয়া বাড়ীব ভিতর দিয়া আসিতাম। সে যেন অনিচ্ছাক্রমে বাড়ীর মধ্যে যাইত। আমি এইখানে থাকিতে থাকিতে আমার বন্ধু যোগেজ (যিনি পৰে যোগেজ বিদ্যাভূষণ নামে প্ৰসিদ্ধ হইয়াছিলেন) বিধবাবিবাহ করেন এবং