পাতা:আত্মচরিত (৪র্থ সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৫০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শিবনাথ শাস্ত্রীব আত্মচারিত [ ৫ম পরিঃ 98ܙ মাডাম ব্লাভাটস্কি মহাত্মাদৈব নামে চিঠি জাল কবিবাব অপবাধে অপরাধী হইয়া এদেশ ত্যাগ কবিতে বাধ্য হন; উপেন্দ্ৰনাথ দাস। এদেশে অনেক প্ৰকাব প্ৰবঞ্চনা কবিয়া বিলাতে গিয়া সেই অপবাধে কয়েদ হন। যাহা হউক, তখন উপেনেব "white liesএব সমর্থন শুনিয়া প্ৰতিবাদ কবিয়াছিলাম বটে, কিন্তু উপেনকে পবিত্যাগ কবি নাই । বোধহয় এই ১৮৬৮ সালেব মধ্যভাগে উপেনেব প্ৰথমা স্ত্রীব। হঠাৎ মৃত্যু হইল। কিরূপে মৃত্যু হইল, বুঝিতে পাবা গেল না। কাবণ ডাক্তাব দেখাইবাব সময় হইল না । উপেনেব মুখে শুনিলাম, হঠাৎ কলেবা হইয়া কয়েক ঘণ্টােব মধ্যে মাবা গেলেন। শোকটা পুরাতন হইতে না হইতে একদিন দুপুব বেলা উপেন কতিপয় বন্ধু সহ সংস্কৃত কলেজে আসিয়া আমাকে এল-এ ক্লাস হইতে ডাকিয়া পাঠাইলেন। বলিলেন, “তুমি শুনিয়া সুখী হইবে, আমি এক বিধবাকে বিবাহ করতে যাচ্চি। মেয়েট ভবানীপুবে আছে, চুবি কবে আনতে হবে। তার মায়েব মত আছে, কিন্তু মামা অভিভাবক, তাৰ মত নাই।” মেয়ে এইরূপে চুবি কবা ভাল কি না, আনিয়া কোথায় বাখা হইবে, কবে কিরূপে বিবাহ হইবে, এ-সকল প্রশ্ন মনে উঠিল না ; মেয়ে চুবি কবিয়াই বিধবাবিবাহ দেওয়া যাইবে, এই উৎসাহেই কলেজ হইতে বিদায় লইয়া তাহদের সহিত যাত্ৰা কবিলাম । আমবা তিনটী যুবক, গাড়িতে মেয়েটীব জায়গা মাত্ৰ আছে। গাড়ি গিয়া ভবানীপুবে এক গলিব মোড়ে দাড়াইল। কথা ছিল, মেয়েটােব জ্যেষ্ঠা ভগিনী দিবা দ্বিপ্রহবেব সময় তাহাকে গাড়িতে তুলিয়া দিয়া যাইবে। তাহা হইল না, আমরা অনেকক্ষণ দাড়াইয়া বহিলাম, মেয়েট আসিল না। পরে সংবাদ পাওয়া গেল, মেয়েটা দিনের বেলা আসিতে পারিল না, সন্ধ্যায় পরে আবার আসিয়া অপেক্ষা করিতে হইবে। কৰ্যোদ্ধান্থনা করিয়া ৰাজীতে ফেরা হইবে না, এই পরামর্শ স্থির হওয়াতে আমরা গাড়ি\াকাইয়া