পাতা:আত্মচরিত (৪র্থ সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Sw8-69. মাতার আত্মমৰ্যাদাবোধ কয়েকজন নবাগত অতিথি আহাবে বসিয়াছেন। আমার মায়ের জাতি সম্বন্ধে খুড়তুতো ভাই অভয়াচৰণ চক্ৰবৰ্ত্তী সেই সঙ্গে বসিয়াছেন। এই অভয় মামা কলিকাতাব সেণ্টজেভিয়াস কলেজে কি বিশপস কলেজে সংস্কৃত পণ্ডিত ছিলেন। তিনি গ্রামে একজন পদস্থ ব্যক্তি । কিন্তু আমাব মা ও পাড়াব অপবাপব প্ৰাচীন আত্মীয়া মহিলাব অভয় মামাকে বালককাল হইতে “ঘোনো”, “ঘোনো” বলিযা ডাকিতেন। তঁহার অভয় নাম দিদিদেব বা খুড়া-জেঠীদেব মুখে। কখনই শোনা যাইত না । সকলেই “ঘোনো”, “ঘোনো” বলিয়া ডাকিতেন । উক্ত দিবস আহাবের সময। আমাব মা পবিবেশন কবিতেছিলেন । তিনি মাছ পরিবেশন কবিবাব সময় অভয় মামাকে জিজ্ঞাসা কবিলেন, “ঘোনো, তোকে একটা মাছেব মুড়ে দেব?” কাবণ অভয় মামা আহাবেব বিষয়ে খুতখুতে। লোক ছিলেন, মা তাহ জানিতেন। এত লোকোব সমক্ষে “ঘোনো৷” বলিযা ডাকাতে অভয় মামা বোষকষায়িতলোচনে একবাব আমার মাযেব মুখেব দিকে চাঙ্গিলেন, এবং অবজ্ঞাসূচক দুই একটি বাক্য প্রয়োগ কৰিলেন। আমাব মা তখন কিছু বলিলেন না। তৎপরে আচমনাস্তে অভয় মামা, যেই ঘবে মধ্যে পান খাইতে আসিয়াছেন, অমনি মা কুপিত সিংহীব ন্যায়, পদাহিতা ফণিনীব ন্যায়, গৰ্জিয়া উঠিলেন, “তবে বে। গাধা ! লেখাপড়া শিখে তোব এই বিদ্যে হয়েছে ? আমি তোকে ঘেনে বলছি, তাই ভাল দেখায়, না, অভয়বাবু বললে ভাল দেখায় ? তোব বন্ধুবা কি জানে না। আমি তোব দিদি ? তুই বাইরে অভয়বাবু হতে পাবিস, আমাদেব কাছে তো সেই ঘোনোই আছিস । জিজ্ঞাসা কবে দেখিস, তোব বন্ধুরা ঐ ঘেনে ডাকেই খুলী হয়েছে। কি না।” আব্ব যদি আমব ঘোনো বলাটা চুকই হয়ে থাকে, তুই তো অতগুলো ভদ্রলোকের সমক্ষে তোর দিদিকে অপমান করুলি। এই তোৰ লেখাপড়ার ফল? তোর লেখাপড়াকে ধিক্‌, তোর প্রফেলাদিতে,